Opu Hasnat

আজ ২৬ জুন বুধবার ২০১৯,

মঙ্গলবার সারাদেশে পাঠ্যপুস্তক উৎসব শিক্ষা

মঙ্গলবার সারাদেশে পাঠ্যপুস্তক উৎসব

প্রাক-প্রাথমিক থেকে নবম শ্রেণি পর্যন্ত—শিক্ষার্থীদের হাতে বিনামূল্যের পাঠ্যবই তুলে দেয়া হবে। এ উপলক্ষে মঙ্গলবার সরকারের দুই মন্ত্রণালয় ‘পাঠ্যপুস্তক উৎসব’ হিসেবে পালন করবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইতোমধ্যে গত ২৪ ডিসেম্বরই শিশুদের হাতে নতুন বই তুলে দিয়ে উৎসবের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেছেন।

এবার সারাদেশে ৪ কোটি ২৬ লাখ ১৯ হাজার ৮৬৫ জন শিক্ষার্থীর হাতে নতুন বই তুলে দেয়ার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে। এজন্য ৩৫ কোটি ২১ লাখ ৯৭ হাজার ৮৮২টি বই ছাপানোর সিদ্ধান্ত হয়।

বই মুদ্রণের দায়িত্বপ্রাপ্ত সরকারি সংস্থা জাতীয় পাঠ্যক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের (এনসিটিবি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক নারায়ণ চন্দ্র সাহা সোমবার জাগো নিউজকে জানান, শতভাগ বই মুদ্রণ শেষে বিতরণের জন্য পাঠানো হয়েছে।

অবশ্য নাম প্রকাশ না করে এনসিটিবি এবং মুদ্রণ শিল্প সমিতি সূত্র জানিয়েছে, বেশকিছু প্রতিষ্ঠান মুদ্রণ কাজ শেষ করতে পারেনি। গত শনিবার পর্যন্ত অতিরিক্ত মজুদের বই মাঠপর্যায়ে সরবরাহ সম্ভব হয়নি।

দু’টি পাঠ্যপুস্তক উৎসবের একটি রাজধানীর আজিমপুর সরকারি গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ মাঠে আয়োজন করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এতে প্রধান অতিথি থাকবেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। সকাল ১০টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে অপর উৎসব আয়োজন করেছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। এতে প্রধান অতিথি থাকবেন রোববারে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী অ্যাডভোকেট মোস্তাফিজুর রহমান।

জানা গেছে, শুধু রাজধানীতেই নয়, সারাদেশের প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে উৎসবের মাধ্যমে শিশুদের হাতে নতুন বই তুলে দেয়া হবে। মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় সব স্কুলে উৎসবের সার্বিক প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। এসব অনুষ্ঠানে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা যোগ দেবেন।

এনসিটিবি সূত্র জানায়, নতুন শিক্ষাবর্ষে প্রাক-প্রাথমিক স্তরের ৩৪ লাখ ২৮ হাজার ১০ শিক্ষার্থীর জন্য ৬৮ লাখ ৫৬ হাজার ২০টি পাঠ্যপুস্তক দেয়া হবে।

এছাড়া প্রাথমিক স্তরের দুই কোটি ৩৭ লাখ ৭ হাজার ১ জন শিক্ষার্থীর জন্য ৯ কোটি ৮৮ লাখ ৮২ হাজার ৮৯৯টি; প্রাক-প্রাথমিক, প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির ক্ষুদ্র-নৃ-গোষ্ঠীর পাঁচটি ভাষার ৯৮ হাজার ১৪৪ জন শিক্ষার্থীর জন্য ২ লাখ ৭৬ হাজার ৭৮৪ টি; মাধ্যমিক স্তরের বাংলা ইংরেজি ভার্সন, ইবতেদায়ি, দাখিল, দাখিল ভোকেশনাল, কারিগরির এক কোটি ৮৭ লাখ ১৫ হাজার ৯৬০ জন শিক্ষার্থীর জন্য ২৪ কোটি ৬০ লাখ ৫২ হাজার ৬১টি পাঠ্যপুস্তক রয়েছে।

২০১০ সাল থেকে সরকার প্রাক-প্রাথমিক, প্রাথমিক, ইবতেদায়ি, মাধ্যমিক, দাখিল, দাখিল (ভোকেশনাল) ও এসএসসি (ভোকেশনাল) স্তরের বিনামূল্যে পাঠ্যবই দিচ্ছে। ২০১৮ সাল পর্যন্ত সর্বমোট ২৬০ কোটি ৮৬ লাখ ৯১ হাজার ২৯০ কপি পাঠ্যপুস্তক বিনামূল্যে বিতরণ করেছে সরকার।