Opu Hasnat

আজ ১২ ডিসেম্বর বুধবার ২০১৮,

ফরিদপুর জামাল হোসেন মিয়ার আবেগঘন ফেসবুক ষ্টাটার্স ফরিদপুর

ফরিদপুর জামাল হোসেন মিয়ার আবেগঘন ফেসবুক ষ্টাটার্স

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের তথ্য ও গবেষনা বিষয়ক উপ কমিটির সদস্য, শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের পরিচালক, বসুন্ধরা গ্রæপের পরিচালক সাবেক ছাত্রনেতা এ্যাড. জামাল হোসেন মিয়া তার ফেসবুক পেজে তার নিজ এলাকা ফরিদপুর-০২(নগরকান্দা, সালথা ও কৃষ্ণপুর) আসন নিয়ে আবেগঘন ষ্টার্টাস দিয়েছেন। এসময় তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পতাকা তলে থেকে ফরিদপুর-০২ আসনে নৌকা থেকে মনোনয়ন পাওয়া প্রার্থীর পক্ষে কাজ করার উদাত্ত আহবান জানান তার নেতাকর্মিদের। 

তিনি তার ষ্টাটার্সে বলেন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন খুব নিকটবর্তী। এই সময় আমাদের আর ঘড়ে বসে থাকার উপায় নেই। এখন মনোনয়ন পাওয়া নৌকার প্রার্থীর পক্ষে আমাদের সকলের নেমে পড়তে হবে বলে তিনি সেখানে উল্লেখ করেন।  নিচে তার লেখাটি পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হলো ঃ  
আমার আস্থা ও ভালবাসার ঠিকানা আমার প্রিয় জন্মভূমি 
ফরিদপুর-২ (নগরকান্দা, সালথা ও কৃষ্ণপুর) এলাকাবাসী,
আস্সালামু আলাইকুম,

সুদীর্ঘ পথ পরিক্রমায় আপনাদের সাথে আমি গভীর ভালবাসার বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছি। আপনারা ফরিদপুর-২ (নগরকান্দা, সালথা ও কৃষ্ণপুর) আসনের প্রতিটি মানুষ আমাকে হৃদয়ের গভীরে স্থান দিয়ে নিজের সন্তান, আপন ভাই কিংবা ঘনিষ্ঠ বন্ধুর মতোই সাড়া দিয়েছেন আমার ডাকে। আমার চাওয়া পাওয়ার চেয়েও অনেক বেশী ভালবাসা আপনারা আমাকে দিয়েছেন আমি সৌভাগ্যবান, আমি আপনাদের কাছে চিরকৃতজ্ঞ। আমার শ্রদ্ধেয় পিতা বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম আলহাজ্জ্ব আবু শহীদ মিয়াকে তালমা ইউনিয়নবাসী বারবার চেয়ারম্যান নির্বাচিত করেছেন এবং আমার ভাই মোঃ কামাল হোসেন মিয়াকে ফরিদপুর জেলা পরিষদের সদস্য হিসেবে নির্বাচিত করে প্রমান করেছেন আমাদের পরিবারকে আপনারা মন প্রাণ উজার করে কতটা ভালবাসেন।

আপনাদের অকৃত্রিম ভালবাসা ও অকুন্ঠ সমর্থন আমাকে শিখিয়েছে নগরকান্দা, সালথা ও কৃষ্ণপুর এর প্রতিটি গ্রামই আমার গ্রাম, আমার অস্তিত্বের শেঁকড়। আমি সর্বাত্মক চেষ্টা করেছি ফরিদপুর-২ আসনের জনগণের সাথে সম্পৃক্ত থেকে তাদের সমস্যা ও সম্ভাবনার কথা শোনার, বিভিন্ন প্রয়োজনে জনগণের পাশে থেকে তাদের মুখে হাসি ফোটানোর জন্য সাধ্যমত কাজ করার। কেননা আপনাদের হাসিমুখ আমার জীবনকে অর্থবহ করে তোলে। তাই বার বার শেঁকড়ের টানে, মায়ার বাঁধনে আপনাদের কাছে ছুটে গিয়েছি কারও ছেলে হিসেবে, ভাই, বন্ধু কিংবা প্রিয়জন হিসেবে।

শত অন্যায় আর অবিচারের মুখোমুখি দাঁড়িয়ে ফরিদপুর-২ আসনের ভাগ্য বঞ্চিত ও নির্যাতিত জনগণের ভাগ্যোন্নয়ন ও অশান্ত নগরকান্দা, সালথা ও কৃষ্ণপুরের আপামর জনগণকে সাথে নিয়ে যে শান্তির সূবাতাস আমি প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম হয়েছি হয়তো সেটাই আমার অপরাধ! ভাগ্যের নির্মম পরিহাস বার বার আমাকে মিথ্যা অভিযোগে জড়ানোর চেষ্টা করা হয়েছে, মহান রাব্বুল আলআমিন এর অশেষ রহমতে আর আপনাদের মত হাজারো জনগণের নিঃস্বার্থ ও বুকভরা ভালবাসায় কোন মিথ্যা অভিযোগ আমাকে স্পর্শ করতে পারেনি আর কোনও দিন পারবেওনা ইনশাহ্ আল্লাহ। 

ফরিদপুর -২ আসনের অধিকাংশ মানুষ যারা আমাকে নিয়ে স¦প্ন দেখেছেন, অকুন্ঠ সমর্থন দিয়ে আমার পাশে ছিলেন এবং আছেন এবং আপনাদের প্রতিনিধি হিসেবে চেয়েিেছলেন তাদের উদ্দেশ্যেই বলছি, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সূযোগ্য কন্যা বিশ^নেত্রী শেখ হাসিনা’র উন্নয়ন নীতিমালা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে আপনাদেরকে সাথে নিয়ে ফরিদপুর-২ আসনকে এগিয়ে নেয়ার সর্বাত্মক প্রচেষ্টা করেছি। আমাদের প্রিয় নেত্রী বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ এর সভাপতি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাদের চেয়ে সহস্র গুন বেশী জ্ঞানসম্মৃদ্ধ, পরিণত ও দূরদর্শী, আর এ কারনেই বাংলাদেশ আজ বিশে^র দরবারে উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে। এ উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে হবে, এ উদ্যমকে হৃদয়ে ধারন করে সকলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ এর মনোনীত প্রার্থীকে বাংলার আপামর গণমানুষের প্রতিক, সুখি ও সম্মৃদ্ধির পথে এগিয়ে চলার প্রতিক, নৌকা মার্কায় ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করার লক্ষ্যে নিরলসভাবে কাজ করে যেতে হবে। মনে রাখবেন নৌকার বিজয় মানে শান্তি ও উন্নতির বিজয়, নৌকার বিজয় মানে মুক্তি, অগ্রগতি, উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষা ও সম্মৃদ্ধির বিজয়, নৌকার বিজয় মানে জাতীর জনকের স্বপ্ন পুরণ, নৌকার বিজয় মানে শেখ হাসিনার বিজয়, নৌকার বিজয় মানে স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তির বিজয়। তাই নৌকাকে বিজয়ী করতে হবে। একজন বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান হিসেবে জীবনের শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে হলেও নৌকার বিজয়ের জন্য কাজ করে যাবো ইনশাহ্ আল্লাহ। তাই সময়ের প্রয়োজনে সব দুঃখ কষ্ট ভূলে আত্মনিয়োগ করতে হবে নৌকার বিজয়ের লক্ষ্যে। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকার বিজয়ের কোনও বিকল্প নেই। পরিশেষে যে প্রবল ভালবাসার বন্ধনে আপনারা আমাকে আবদ্ধ করেছেন ইচ্ছা করলেও আপনাদের কাছ থেকে দুরে থাকা আমার পক্ষে অসম্ভব। সারা জীবন এভাবেই আপনাদের পাশে থেকে কাজ করে যেতে চাই ইনশাহ্ আল্লাহ। আপনার সবাই ভালো থাকুন, সস্থ থাকুন, আপনাদের বুকভরা ভালবাসা ও দোয়া হোক আমার আগামী দিনের পথ চলার পাথেয়। অদূর ভবিষ্যতে মহান সৃষ্টিকর্তা অবশ্যই আপনাদের মনের আশা পুরণ করবেন ইনশাহ্ আল্লাহ। সবাই ভালো থাকবেন এবং আমার জন্য দোয়া করবেন। জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু জয় হোক বাংলার মেহনতি মানুষের, দীর্ঘজীবি হোক বাংলাদেশ ।