Opu Hasnat

আজ ১৯ নভেম্বর মঙ্গলবার ২০১৯,

পটুয়াখালীতে ২১ প্রকল্পের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী পটুয়াখালী

পটুয়াখালীতে ২১ প্রকল্পের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় পাঁচটি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ও ১৬টি উন্নয়ন প্রকল্পের ফলক উম্মোচন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আজ (২৭ অক্টোবর) উপকূলীয় দুটি জেলা পটুয়াখালী ও বরগুনা সফর এবং উন্নয়নমূলক কাজের অংশ হিসেবে এই উদ্বোধন করেন।

সকাল ১১টা ৪০ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী পটুয়াখালীতে হেলিকপ্টারযোগে অবতরণ করেন। এরপর দুপুর দেড়টায় পটুয়াখালীর পায়রায় নির্মাণাধীন ১৩২০ মেগাওয়াট তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে কলাপাড়া উপজেলার ধানখালী ইউনিয়নের লোন্দাগ্রামে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলোর জন্য তৈরি ‘স্বপ্নের ঠিকানা’ নামের পুনর্বাসন পল্লী উদ্বোধন করেন। এ সময় তিনি ওই ২১ প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর ও ফলক উন্মোচন করেন।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী পুনর্বাসন পল্লী পরিদর্শনকালে মাছের পোনা অবমুক্ত করেন ও বৃক্ষরোপণ করেন। পরে তিনি সেখানেই সুধী সমাবেশে অংশ নেন।

প্রধানমন্ত্রী বেলা সাড়ে ১১টায় হেলিকপ্টারযোগে পটুয়াখালীর পায়রায় যান। তিনি বিকেলে বরগুনার তালতলী উপজেলায় আয়োজিত জনসভায় যোগদান এবং বরগুনায় আরো ২১টি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর ও ফলক উন্মোচন করেন।

পটুয়াখালীতে যেসব উন্নয়ন প্রকল্পের ফলক উন্মোচন করা হয়েছে সেগুলোর মধ্যে রয়েছে পটুয়াখালী সরকারি কলেজে নবনির্মিত ১৩২ আসন বিশিষ্ট পাঁচতলা ছাত্রীনিবাস, পটুয়াখালী সরকারি কলেজে নবনির্মিত একাডেমিক কাম-এক্সামিনেশন হল, হাজী আক্কেল আলী হাওলাদার কলেজে চারতলা বিশিষ্ট নবনির্মিত একাডেমিক ভবন, ইসহাক মডেল ডিগ্রি কলেজের নবনির্মিত চারতলা বিশিষ্ট একাডেমিক ভবন, কুয়াকাটা খানাবাদ কলেজে নবনির্মিত চারতলা বিশিষ্ট একাডেমিক ভবন, মুক্তিযোদ্ধা মেমোরিয়াল কলেজের নবনির্মিত চারতলা বিশিষ্ট একাডেমিক ভবন, জালাল উদ্দিন কলেজের নবনির্মিত চারতলা বিশিষ্ট একাডেমিক ভবন, সুবিদখালী ডিগ্রি কলেজের নবনির্মিত চারতলা বিশিষ্ট একাডেমিক ভবন, দুমকি জনতা ডিগ্রি কলেজের নবনির্মিত চারতলা বিশিষ্ট একাডেমিক ভবন, দুমকি উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়ন, মির্জাগঞ্জ ৩৩/১১ কেভি বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র, ক্ষমতা ১০/১৪ এমভিএ, পায়রা সমুদ্র বন্দরের শেখ হাসিনা সড়ক, পায়রা সমুদ্র বন্দরের৬ সার্ভিস জেটি, পায়রা সমুদ্র বন্দরের মসজিদ, পায়রা সমুদ্র বন্দরের অফিসার্স গেস্ট হাউজ ও পায়রা সমুদ্র বন্দরের স্টাফ ডরমেটরি। 

পাশাপাশি পটুয়াখালী সরকারি কলেজের পাঁচতলা বিজ্ঞান ভবন, মির্জাগঞ্জের কাঠালতলি জিসি-পটুয়াখালী বেতাগী আরএসডি (থানা ব্রিজ) সড়কের শ্রীমন্ত নদীর ওপর ৯৬ মিটার ব্রিজ, উপজেলা পর্যায়ে প্রযুক্তি পৌঁছে দিতে কৃষক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র (তৃতীয় পর্যায়ে) শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় কলাপাড়া ও মির্জাগঞ্জ উপজেলায় কৃষক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র এবং পায়রা সমুদ্র বন্দরের জন্য ভূমি অধিগ্রহণের ফলে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের পুনর্বাসন প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন করেছেন প্রধানমন্ত্রী। 

এ ছাড়া বিকলে বরগুনারা তালতলীতে যে ২১টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করেন সেগুলোর মধ্যে রয়েছে, বরগুনা সদর হাসপাতালকে ২৫০ শয্যায় উন্নীতকরণ, বামনা উপজেলা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন, বেতাগী উপজেলা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন, বরগুনা সদরে গণগ্রন্থাগার, বরগুনা জেলা পুলিশ লাইনে মহিলা ব্যারাক নির্মাণ, দৃষ্টি প্রতিবন্ধী শিশুদের জন্য হোস্টেল নির্মাণ, আমতলী থানা ভবন, বরগুনা সদর ইউনিয়ন ভূমি অফিস, ডৌয়াতলা ইউনিয়ন ভূমি অফিস, হোসনাবাদ ইউনিয়ন ভূমি অফিস, ঘূর্ণিঝড় সিডর ও আইলায় ক্ষতিগ্রস্ত উপকূলীয় বাঁধ পুনর্বাসন, বরগুনা এম. বালিয়াতলী ডিএন কলেজের চারতলা একাডেমিক ভবন কাম ঘূর্ণিঝড় আশ্রয়কেন্দ্র, পাথরঘাটা সৈয়দ ফজলুল হক ডিগ্রি কলেজের চারতলা একাডেমিক ভবন কাম ঘূর্ণিঝড় আশ্রয়কেন্দ্র, আমতলী ইউনুস আলী খান ডিগ্রি কলেজের চারতলা একাডেমিক ভবন কাম ঘূর্ণিঝড় আশ্রয়কেন্দ্র, তালতলী উপজেলা প্রাণিসম্পদ উন্নয়ন কেন্দ্র, বাকেরগঞ্জ-পাদ্রীশিবপুর-কাঁঠালতলী-সুবিদখালী-বরগুনা সড়ক প্রশস্ত ও মজবুতিকরণ, বুড়িরচর ইউনিয়ন পরিষদ-হাজারবিঘা-কামড়াবাদ-পুরাকাটা ফেরিঘাট সড়কের ৫৩২০ মিটার চেইনেজে ৫৪ মিটার আরসিসি গার্ডার ব্রিজ, গৌরীচন্না ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স ভবন, বেতাগী উপজেলাধীন বদনীখালী খালের ওপর ২০ মিটার চেইনেজে ১২০ মিটার আরসিসি গার্ডার ব্রিজ, বামনা উপজেলা পরিষদ কমপ্লেক্স ভবন সম্প্রসারণ, তালতলী উপজেলা পরিষদ কমপ্লেক্স ভবন।