Opu Hasnat

আজ ২২ নভেম্বর বৃহস্পতিবার ২০১৮,

এ কেমন নিষ্ঠুরতা ? ঝালকাঠি

এ কেমন নিষ্ঠুরতা ?


রাজাপুর উপজেলার পশ্চিম বাদুরতলা এলাকার মোঃ খলিল ফকিরের ছেলে অটো চালক রাকিবুল হাচান ফকিরের (২২) সাথে পার্শ¦বর্তি এলাকার হামিদ হাওলাদারের মেয়ে স্কুল ছাত্রী তানজিলার সাথে কয়েক মাস পূর্বে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। তানজিলার পরিবারে বিষয়টি জেনে অন্যথায় চাপ সৃষ্টি করে আসছিলো। ভালোবাসার গভীরতার টানে গত ১২ অক্টোবর ভোররাতে নিজ বাড়ি থেকে পালিয়ে রাকিবুল হাচানের ঘরে গিয়ে আশ্রয় নেয় তানজিলা।

 সকালে তানজিলাকে বিছানায় না পেয়ে স্বজনরা খোজাখুজি করে রাকিবুল হাচানের ঘরে আছে বলে সন্ধান পান। স্থানীয় ইউপি সদস্য মোঃ ওবায়দুল হক ননির মধ্যস্থতায় ৮ ঘন্টার মধ্যেই সানজিদাকে তার অভিভাবকের কাছে বুঝিয়ে দেয় রাকিবুল হাচানের পিতা খলিল ফকির। তারপরেও তানজিলার মা শিরিন আক্তার বাদী হয়ে রাকিবুল হাচানসহ তার স্বজনদের বিরুদ্ধে ঝালকাঠি আদালতে একটি নালিশী অভিযোগ দায়ের করেন। বুধবার রাত ৮ টার দিকে হাচান বাড়ি থেকে বের হলে পুর্ব পরিকল্পিতভাবে তানজিলার নানা জাফর আলী (৬২), মামা কাওসার (৩৭) ও জহিরুল ইসলাম (২৭) হাচানের ওপর আক্রমন চালিয়ে হামলা করে। এসময় তাদের হাতে থাকা লোহার রড দিয়ে এলোপাথারি পিটিয়ে রাকিবুল হাচানের মাথায় রক্তাক্ত জখম করে। রাকিবুল হাসাচানের মাথার ৪ স্থানে কাটা জখম হয়। 

তার ডাক চিৎকারে স্থানীয়রা এসে তাকে আশংকাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে রাজাপুর মেডিকেলে নিয়ে যায়। কর্তব্যরত চিকিৎসক রক্তাক্ত রাকিবুল হাচানকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বরিশাল শের-এ বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে উন্নত চিকিৎসার জন্য প্রেরণ করেন। রাকিবুল হাচান বর্তমানে বরিশাল শেরে বাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন আছে। এ ব্যাপারে তানজিলার মা মোসাঃ শিরিন আক্তার হামলার ঘটনা অস্বীকার করে জানান, রাকিবের নামে আমি মামলা দিয়েছি। মামলা থেকে বাঁচার জন্য এসব নাটক করছে। এ ব্যাপারে রাজাপুর থানা অফিসার ইনচার্জ শামসুল আরেফিন জানান, অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।