Opu Hasnat

আজ ২১ অক্টোবর সোমবার ২০১৯,

নরসিংদীতে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে দু’টি বাড়ি ঘেরাও, অভিযানের প্রস্তুতি নরসিংদী

নরসিংদীতে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে দু’টি বাড়ি ঘেরাও, অভিযানের প্রস্তুতি

নরসিংদীর মাধবদী ও শেখেরচরে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে দু’টি বাড়ি ঘিরে রেখেছে পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিটের সদস্যরা।

জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে সোমবার রাত ৮টার পর থেকে মাধবদী পৌরসভার গাঙপাড় এলাকার আফজাল হাজির ‘নিলুফা ভিলা’ ও সদর উপজেলার শেখেরচরের দিঘিরপাড় চেয়ারম্যান বাড়ি সড়কে আরেকটি বাড়ি ঘেরাও করে অভিযানের প্রস্তিতি নিচ্ছে সিটিটিসি।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (শিবপুর সার্কেল) থান্ডার খায়রুল হাসান সাংবাদিকদের বলেন, সাত তলা বাড়িটির এক তলা থেকে তিন তলা পর্যন্ত মিততাহুল জান্নাহ হমিলা মাদ্রাসা। আমরা গোপন সূত্রে তথ্য পেয়েছি বাড়িটির সাত তলার একটি বাসায় সাত জঙ্গি অবস্থান করছে। এরই ভিত্তিতে পুলিশ ও কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিটের ১৫০ জন সদস্য যৌথভাবে এ অভিযান চালাচ্ছে।

একই সঙ্গে শেখেরচরের দিঘিরপাড় চেয়ারম্যান বাড়ি সড়কের আরেকটি বাড়িতেও জঙ্গি আস্তানার সন্ধান পাওয়া গেছে।

এদিকে রাত দেড়টার দিকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন নরসিংদীর পুলিশ সুপার সাইফুল্লাহ আল মামুন। তিনি উপস্থিত সাংবাদিকদের নিরাপদ দূরত্বে থেকে দায়িত্ব পালন করতে বলেন।

পুলিশের সূত্র জানায়, আস্তানাগুলোতে জঙ্গি রয়েছে এটা নিশ্চিত হয়েই এ অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। এখন ভেতরের পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। ভোরে কিংবা সকালের দিকে পুলিশ আস্তানাগুলোতে অভিযান শুরু করতে পারে বলে ইঙ্গিত পাওয়া গেছে।

সিটিটিসির দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা জানান, অভিযানের জন্য সিটিটিসির সোয়াট টিমকে ডাকা হয়েছে। সোয়াট সদস্যরা গিয়ে পৌঁছালে ভোরের দিকে অভিযান চালানো হতে পারে। আস্তানা দুইটির মধ্যে একটি হলো মাধবদীর গাঙপাড় এলাকার পাঁচ তলা একটি ভবন। এই ভবনের ৫ম তলায় অন্তত দুই জন পুরুষ ও একজন নারী রয়েছেন বলে কাউন্টার টেরোরেজিমের কর্মকর্তারা জানতে পেরেছেন। আর শেখেরচর এলাকার একটি সাত তলা ভবনের ৭ম তলায় অন্তত দুই জন নারী রয়েছেন বলে সিটিটিসি কর্মকর্তারা ধারণা করছেন।

সিটিটিসির অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার আবদুল মান্নান বলেন, ‘আমরা  জেএমবির আস্তানা দুইটি ঘেরাও করে রেখেছি। অপারেশনের প্রস্তুতি চলছে। রাত পোহালে অপারেশন পরিচালনা করা হবে।’