Opu Hasnat

আজ ১৮ অক্টোবর বৃহস্পতিবার ২০১৮,

একমঞ্চে আন্দোলনের সিদ্ধান্ত বিএনপি-যুক্তফ্রন্ট-ঐক্য প্রক্রিয়ার রাজনীতি

একমঞ্চে আন্দোলনের সিদ্ধান্ত বিএনপি-যুক্তফ্রন্ট-ঐক্য প্রক্রিয়ার

 
 
পাঁচ দফা দাবিতে একমঞ্চে আন্দোলন করার নীতিগত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া, যুক্তফ্রন্ট ও বিএনপি নেতারা।
 
রোববার রাতে রাজধানীর গুলশানে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনের বাসায় অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়।
 
 
বৈঠক শেষে যুক্তফ্রন্ট নেতা ও জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব জানান, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াসহ সব রাজনৈতিক বন্দিদের মুক্তি, নির্বাচনের আগে সংসদ ভেঙে দেয়া, প্রধানমন্ত্রীসহ মন্ত্রিসভার পদত্যাগ, সেনাবাহিনীকে ম্যাজিস্ট্রেসি ক্ষমতা দিয়ে নির্বাচনের আগে ও পরে মোতায়েন রাখা, ইভিএম ব্যবহার না করা, নিরাপদ সড়কের দাবি ও কোটা সংস্কার আন্দোলনে যাদের গ্রেফতার করা হয়েছে তাদেরসহ সব রাজনৈতিক বন্দিদের মুক্তি দেয়ার দাবিতে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন করার নীতিগত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে।
 
সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমরা বিএনপির সঙ্গে ঐক্য করছি। মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সব দল এখানে থাকতে পারবে। তবে বিএনপির সঙ্গে অন্য কেউ থাকবে কি-না তা আমরা বলতে পারবো না। বাংলাদেশের জনগণ চায় আমরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে বর্তমান স্বৈরচারের বিরুদ্ধে আন্দোলন করি।’
 
জেএসডি সভাপতি বলেন, ‘একই মামলায় অন্যদের জামিনের পরও তিনবারের প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া কেন জেলে? আমরা জানি না। আমরা খালেদা জিয়াসহ কোটা ও নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলন করতে গিয়ে এবং গায়েবি মামলায় আটক সবার মুক্তি চাই। জনগণ আজ শঙ্কিত। সবাই ঐক্য চায়। এটা সবার চাওয়া। আমরা আগামীতে বসে আন্দোলন কর্মসূচি ঠিক করবো।’
 
বৈঠক শেষে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ সাংবাদিকদের বলেন, ‘খালেদা জিয়ার মুক্তিসহ ৫টি মৌলিক দাবিতে আমরা ঐক্যবদ্ধ হয়েছি। এগুলোর ওপর ভিত্তি করে আমরা বৃহত্তর জাতীয় ঐক্য গড়ে তুলবো। এই দাবিগুলো আদায় করে বাংলাদেশে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলন করবো।’
 
মওদুদ বলেন, ‘ আমাদের দাবি- খালেদা জিয়ার মুক্তিসহ সব রাজনৈতিক নেতাদের মুক্তি ও কোটা সংস্কার, নিরাপদ সড়কের দাবিতে আদোলনকারীদের মুক্তি, নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে আগামী নির্বাচন, সংসদ ভেঙে দেয়া, নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন ও নির্বাচনে সেনাবাহিনীকে ম্যাজিস্ট্রেসি ক্ষমতা দিয়ে মোতায়েন করা।’
 
বৈঠকে আরও উপস্থিত ছিলেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, বিকল্প ধারার মহাসচিব মেজর (অব.) আবদুল মান্নান, জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার মোস্তফা মহসীন মন্টু ও আবম মোস্তফা আমীন, বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ড. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।