Opu Hasnat

আজ ১৯ ডিসেম্বর বুধবার ২০১৮,

খালেদার সাক্ষাৎ পেতে বিএসএমএমইউতে মওদুদসহ চার আইনজীবী রাজনীতি

খালেদার সাক্ষাৎ পেতে বিএসএমএমইউতে মওদুদসহ চার আইনজীবী

 

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) গেছেন মওদুদসহ চার আইনজীবী।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের নেতৃত্বে চার সদস্যের আইনজীবী টিম রোববার দুপুরে হাসপাতালে যান। তবে তারা খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করার জন্য এখনও অনুমতি পাননি বলে জানা গেছে।


চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের সদস্য শামসুদ্দিন দিদার এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ ছাড়াও অ্যাডভোকেট এ জে মোহাম্মদ আলী, অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন ও ব্যারিস্টার কায়সার কামাল হাসপাতালে গেছেন।

শামসুদ্দিন দিদার বলেন, তারা হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আব্দুল্লাহ আল হারুনের সঙ্গে কথা বলে খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করার চেষ্টা করছেন।

খালেদার জিয়ার চিকিৎসায় নতুন মেডিকেল বোর্ড গঠন

হাইকোর্টের নির্দেশনায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় গঠিত মেডিকেল বোর্ড পুনর্গঠন হয়েছে। নতুন করে তিনজন সদস্য এতে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। বাদ পড়েছেন আগের বোর্ডের তিন জন। অর্থাৎ তিনজন চিকিৎসককে বাদ দিয়ে তাদের স্থানে নতুন তিনজনকে নিয়ে মেডিকেল বোর্ড পুনর্গঠিত হয়েছে।

বোর্ডের প্রধান হিসেবে আগের মতোই রয়েছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ইন্টারনাল মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক আবদুল জলিল চৌধুরী।


এর আগে শনিবার দুপুরে খালেদা জিয়াকে বিএসএমএমইউ হাসপাতালে ভর্তির পর হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবদুল্লাহ আল হারুন মেডিকেল বোর্ড পুনর্গঠনের কথা সাংবাদিকদের জানান। পুনর্গঠিত মেডিকেল বোর্ডে সদস্য রয়েছেন- রিউমেটোলজি বিভাগের অধ্যাপক সৈয়দ আতিকুল হক, কার্ডিওলজি বিভাগের অধ্যাপক সজল কৃষ্ণ ব্যানার্জী, অর্থোপেডিক বিভাগের অধ্যাপক নকুল কুমার দত্ত ও ফিজিক্যাল মেডিসিন অ্যান্ড রিহ্যাবলিটেশন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক বদরুন্নেসা আহমেদ।

আগের মেডিকেল বোর্ড থেকে বাদ পড়েছেন কার্ডিওলজি বিভাগের অধ্যাপক হারিসুল হক, অর্থোপেডিক সার্জারি বিভাগের অধ্যাপক আবু জাফর চৌধুরী ও চক্ষু বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক তারেক রেজা আলী।

বিএনপি আট মাস ধরে কারাবন্দি খালেদা জিয়াকে বেসরকারি ইউনাইটেড হাসপাতালে নেওয়ার দাবি জানিয়ে আসলেও বৃহস্পতিবার হাই কোর্টের রায়ের পর বিএসএমএমইউতে নেওয়া হয়।


হাইকোর্টের আদেশে তাকে দ্রুত বিএসএমএমইউতে ভর্তি এবং তার চিকিৎসায় গঠিত পাঁচ সদস্যের মেডিকেল বোর্ড পুনর্গঠনের নির্দেশ দেওয়া হয়। শনিবারই তাকে ভর্তি করা হয় হাসপাতালে। একই দিন পুনর্গঠন করা হয় মেডিকেল বোর্ড।