Opu Hasnat

আজ ১৯ ডিসেম্বর বুধবার ২০১৮,

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ দুর্বার গতিতে এগিয়ে চলেছে : চসিক মেয়র চট্টগ্রাম

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ দুর্বার গতিতে এগিয়ে চলেছে : চসিক মেয়র

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক) মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ আজ দুর্বার গতিতে এগিয়ে চলেছে। উন্নয়নের কয়েকটি সূচকে বাংলাদেশ আজ উপরের সারিতে অবস্থান করছে। এই দেশটি কারো দয়ায় বা দাক্ষিণ্যে অর্জিত হয়নি। 

সোমবার দুপুরে সিআরবি শিরীষ তলায় ‘ইয়ং বাংলা’র সেন্টার ফর রিসার্চ এন্ড ইনফরমেশন কর্তৃক আয়োজিত লেটস টক শীর্ষক অনুষ্ঠানে প্যানেল আলোচকের বক্তব্যে সিটি মেয়র এসব কথা বলেন।

মেয়র বলেন, স্বাধীনতা অর্জনের পেছনে দীর্ঘ ত্যাগ,সংগ্রামের ইতিহাস আছে। সকল মানুষের মুখে হাসি ফোটানো, সকল মানুষের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করার লক্ষ্যে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে বাঙালি মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে এই দেশ স্বাধীন করেছে। একটি অসম্প্রাদায়িক রাষ্ট্র  গঠনই ছিল বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন। ১৫ই আগষ্ট বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়। শুরু হয় ষড়যন্ত্রের রাজনীতি আর সম্প্রদায়িক বিষবাস্প । চলতে থাকে পাকিস্তানী কায়দায় শাসননীতি। এই  সাম্প্রদায়িক শক্তিই বিভিন্ন অপরাজনীতি, ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে এ দেশকে পেছনের দিকে নিয়ে যেতে চায়। আজ দেশের প্রতিটি মানুষকে এই সত্য উপলব্ধি করতে হবে। মেয়র আরো বলেন বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশ আজ যে জায়গায় উন্নীত হয়েছে, তা বলে শেষ করা যাবে না। বিশ্বে আজ বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেল। দেশের এই উন্নয়ন অগ্রগতি অব্যাহত রাখতে সরকারের ধারাবাহিকতা অক্ষুন্ন রাখতে হবে। উন্নয়ন, অগ্রগতির জন্য রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় বলে তিনি উল্লেখ করেন। 

এই প্রসঙ্গে তিনি বর্তমান প্রজন্মকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ইয়ং বাংলা সংগঠনটি দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে এই সেবামূলক কাজ করে যাচ্ছে। বাঙালি জাতীয়তাবাদী চেতনায় প্রণোদিত হয়ে এ সংগঠন দেশের জন্য কাজ করে যাচ্ছে। দেশের স্বার্থকে সবকিছুর উর্ধে প্রাধান্য দিয়ে ত্যাগ স্বীকার করার মানসিকতা নিয়ে ইয়ং বাংলা দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। তিনি নতুন প্রজন্মকে পিতামাতার প্রতি দায়িত্বশীল আচরণ ও কর্তব্যের ব্যাপারে সচেতন হওয়ার আহবান জানান। অনুষ্ঠানে আলোচকের বক্তব্যে মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম এন্ড অপারেশন) আমেনা বেগম বলেন, এই নগরে প্রতিদিন প্রায় ১ লাখ শিশু-কিশোর বাজারে যায়। ক্ষেত্র বিশেষে তাদের মাধ্যমেই প্রায় ৫ লাখ পলিথিন ব্যাগ বিভিন্ন ভাবে খাল, নালায় এসে পড়ে। অথচ এই পলিথিন অপচনশীল। খাল,নালায় পলিথিন ব্যাগ ফেলার কারণে পানির স্বাভাবিক গতি প্রবাহ নষ্ট হয়। নগরে জলাবদ্ধতা সৃষ্টির জন্য এই পলিথিন ব্যাগ অনেকাংশেই দায়ী। তিনি আয়োজকদেরকে পলিথিন ব্যাগ ব্যবহার বন্ধ করার ব্যাপারে কাজ করার আহবান জানান। আলোচনায় সংরক্ষিত আসন সাংসদ ওয়াসিকা আয়েশা খানম, সমাজসেবা অধিদপ্তর উপ পরিচালক ফরিদুল ইসলাম, চট্টগ্রাম অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা) হাবিবুর রহমান, চট্টগ্রাম চেম্বার পরিচালক অহিদ সিরাজ চৌধুরী স্বপন, অধ্যাপক জসিম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।