Opu Hasnat

আজ ১৭ অক্টোবর বুধবার ২০১৮,

ব্রন ও চুলের যত্নে নিম পাতার ব্যবহার লাইফ স্টাইল

ব্রন ও চুলের যত্নে নিম পাতার ব্যবহার

নিম একটি ঐতিহ্যবাহী ভেষজ ওষুধ যা প্রাচীনকাল থেকেই চর্মরোগের চিকিৎসায় ব্যবহৃত হয়ে আসছে। আলসার, চিকেন পক্স চিকিৎসায়ও ব্যবহৃত হয় নিম। বলা হয়, প্রতিদিন গোসলের পানিতে একমুঠ নিম পাতা দিয়ে গোসল করলে চর্মরোগ দূরে থাকবে এবং শরীর ঠাণ্ডা হবে।

দাঁত পরিস্কারে নিমের মেসওয়াক এখনো গ্রাম-গঞ্জে জনপ্রিয়। নিমে থাকে প্রাকৃতিক অ্যান্টিসেপটিক। এটি উচ্চ মানের অ্যান্টিব্যাক্টেরিয়াল উপাদানে সমৃদ্ধ যা নানা ধরণের সংক্রমন প্রতিরোধ করে।

মাঝ বয়সিদের চুল রুক্ষ হয়ে উঠে যাওয়া একটা স্বাভাবিক প্রবণতা। বর্তমানে অতিরিক্ত মানসিক চাপ ও নানা ধরনের কেমিকেল ব্যবহারের কারণে অল্প বয়সিদেরও এ সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। গবেষকরা বলছেন, ত্বক ও চুলের যে কোন সমস্যার জন্য নিম হতে পারে উৎকৃষ্ঠ সমাধান। নিমের ১০টি ব্যবহার দেওয়া হলো-

১. ব্রনের জন্য নিম ফেস প্যাক

কিছু নিমপাতা সামান্য পানিতে এক ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখুন। সেই পাতা বেটে পেস্ট তৈরি করে তা ব্রনের উপর দিয়ে একঘণ্টা অপেক্ষা করুন। এবার ধুয়ে ভালো ময়েশ্চরাইজার লাগান। ব্রন চলে গিয়ে ত্বক আরও উজ্জ্বল হবে।

২. চুলের জন্য নিমের তেল
২৫০ মিলি নারকেল তেল একটা পাত্রে নিয়ে গরম করুন। তেল ফুটতে শুরু করলে তার মধ্যে বেশ কিছু নিম পাতা ছেড়ে দিয়ে চুলা বন্ধ করুন। এভাবে রেখে দিন চার ঘণ্টা। এবার তেলটুকু একটা বোতলে বা পাত্রে সংরক্ষণ করুন। প্রতি রাতে এই তেল মাথার ত্বকে মালিশ করুন। পরের দিন ধুয়ে ফেলুন। 

৩. স্বাস্থ্যকর ত্বকের জন্য
গোসলের পানিতে ১০-১৫ টা নিমপাতা ছেড়ে ৫ মিনিট অপেক্ষা করুন। এরপর সেই পানি দিয়ে গোসল করুন। গ্রীষ্মের গরমে এই পানি আপনাকে ত্বকের নানা সংক্রমন থেকে দূরে রাখবে। 

৪. স্বাধারণ ত্বকের জন্য ফেস প্যাক
গোলাপ জলের সঙ্গে এক চা-চামচ নিম পাউডার ও এ চা-চামচ তুলসি পাউডার মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। সেটা মুখের ত্বকে লাগিয়ে ১০ মিনিট অপেক্ষা করে ধুয়ে ফেলুন। এটা ত্বককে শুধু মসৃন ও উজ্জ্বলই করবে না, কালো দাগও দূর করবে। 

৫. চিকেন পক্স
নিমপাতা পানিতে সিদ্ধ করুন। সেই পানি ঠান্ডা করে গোসল করুন। তুলার বল দিয়ে নিমপাতা সিদ্ধ পানি সকাল-বিকাল ক্ষতের উপর লাগান। দ্রুত ভাল হয়ে যাবে। 

৬. নিম হেয়ার মাস্ক
এক চা-চামচ নিম পাউডারের সঙ্গে দুই চা-চামচ টক দই মেশান। এটা চুলের গোড়া থেকে আগা পর্যন্ত মাখুন। ১৫ মিনিট পর চুল ধুয়ে ফেলুন। 

৭. একজিমা চিকিৎসায়
এক টুকরো নিমের বাকল সারারাত পানিতে ফিজিয়ে রাখুন। এরপর সেটা বেটে পেস্ট করে একজিমা আক্রান্ত স্থানে লাগান। এটা খুবই কার্যকর।

৮. ডার্ক সার্কেলের জন্য
চোখের কালো দাগ দূর করতে নিমের পাতার ব্যবহার কার্যকর। কিছু নিমপাতা বেটে রস বের করে নিতে হবে। এরপর তুলার প্যাড কিছুক্ষণ সেই রসে ভিজিয়ে রেখে হালকা নিংড়ে চোখের উপর দিয়ে রাখুন ১০ মিনিট। ফলাফল টের পাবেন নিজেই।

৯. চুলের প্রাকৃতিক কন্ডিশনার
নিমপাতা বেটে পেস্ট করে তার সঙ্গে কয়েক ফোটা গোলাপজল ও এক চা-চামচ মধু মিশিয়ে মাথার ত্বক বাদ দিয়ে শুধু চুলে লাগাতে হবে। এক ঘণ্টা রেখে ধুয়ে ফেলুন। চুল হবে ঝলমলে, ঝরঝরে।

১০. ক্ষত সারাতে
এ চা-চামচ নিম পাউডারের সঙ্গে এক চা-চামচ মধু মিশিয়ে ক্ষত স্থানে লাগালে দ্রুত উপশম হয়।