Opu Hasnat

আজ ১৪ ডিসেম্বর শুক্রবার ২০১৮,

ব্রেকিং নিউজ

সুনামগঞ্জে শহীদ আরশ আলীর ৪৮ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী পালিত মুক্তিবার্তাসুনামগঞ্জ

সুনামগঞ্জে শহীদ আরশ আলীর ৪৮ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী পালিত

১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে হাওরবেষ্টিত এলাকা দক্ষিণ সুনামগঞ্জের প্রথম সম্মুখ যুদ্ধে শহীদ বীরমুক্তিযোদ্ধা শহীদ আরশ আলীর ৪৮ তম মৃত্যু বার্ষিকী পালিত হয়েছে। শনিবার বিকাল ৪ টায় শহীদ আরশ আলী স্মৃতি সংসদের উদ্যোগে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপে¬ক্র ভবনে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক কমান্ডার মোঃ আতাউর রহমানের সভাপতিত্বে ও শহীদ আরশ আলী স্মৃতি সংসদের সাধারণ সম্পাদক মোঃ নুরুল হকের পরিচালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন স্মৃতি সংসদের সভাপতি জিল্লুল হক জিলু। 

সভাপতির বক্তব্যে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোঃ আতাউর রহমান বলেন, মুক্তিযোদ্ধারা জাতির সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ সন্তান, যথাযোগ্য মর্যাদায় আমরা স্মরণ করছি বীরমুক্তিযোদ্ধা শহীদ আরশ আলী সহ সারা দেশের সব মুক্তিযোদ্ধাদেরকে। বর্তমান সরকারের অঙ্গীকার মুক্তিযোদ্ধাদের নামে বিভিন্ন রাস্তার নামকরণ সেই অনুসারে আমরা শহীদ আরশ আলীর নামে আস্তমা রাস্তার নামকরণের রেজুলেশন উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ বরাবর প্রেরণ করেছি। শহীদ আরশ আলীর কবর স্থানান্তরের প্রক্রিয়া চলছে। ইতিমধ্যে সরকার ঘোষনা দিয়েছেন কোন শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী অথবা বাবা মা না থাকলে ভাই অথবা বোন ভাতা পাবে। সেই মোতাবেক আমরা শহীদ আরশ আলীর পরিবারের সদস্যদের জন্য ভাতার ব্যবস্থা করার চেষ্টা করছি। 

এ সময় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ আতাউর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল বাছিত সুজন, আওয়ামীলীগ নেতা তেরাব আলী, জিএম সাজ্জাদুর রহমান, শেখ আব্দুল্লাহ, ফখরু মিয়া, জলা যুবলীগ নেতা মাসুক পারভেজ, উপজেলা যুবলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি নুর হোসেন, সহ সভাপতি জুবেল আহমদ, রাজা মিয়া, সাংবাদিক শফিকুল ইসলাম, ইয়াকুব শাহরিয়ার, উপজেলা নারী উন্নয়ন ফোরামের সভাপতি তৈয়বুননেছা, শহীদ আরশ আলীর সহোদর আব্দুল হাশিম প্রমুখ। 

উল্লেখ্য, ১৯৭১ সালের ১৫ ই সেপ্টেম্বর উপজেলার পাথারিয়া ইউনিয়নের বাইবনা গ্রামের আখড়ার মন্দিরে পাকিস্থানী হানাদার বাহিনী রাজাকার আল বদরদের সাথে প্রায় সাড়ে ৩ ঘন্টাব্যাপী সম্মুখ যুদ্ধে শাহাদাত বরণ করেন একাত্তরের বীর সেনানী শহীদ বীরমুক্তিযোদ্ধা শহীদ আরশ আলী। পরে তাহার লাশ দিরাই উপজেলার ভাটিপাড়া আহমদপুর নামক স্থানে সমাধিস্থ্য করা হয়েছে। তিনি উপজেলার জয়কলস ইউনিয়নের আস্তমা গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন। তাহার বাবা মা নেই। বর্তমানে এক ভাই ও দুই বোন হতদরিদ্র হিসেবে সিলেট সুনামগঞ্জ মহাসড়কের শান্তিগঞ্জ হ্যাচারীর পাশে সিএন্ডবির জায়গায় কুড়েঘর নির্মাণ করে মানবেতর জীবন যাপন করছেন।  

এই বিভাগের অন্যান্য খবর