Opu Hasnat

আজ ২১ নভেম্বর বুধবার ২০১৮,

১শ টি অর্থনৈতিক জোন প্রতিষ্ঠা করে দেশের বেকার সমস্যা দূর করা হবে ঝালকাঠি

১শ টি অর্থনৈতিক জোন প্রতিষ্ঠা করে  দেশের বেকার সমস্যা দূর করা হবে


ঝালকাঠিতে ল্যাকটেটিং মাদার সহায়তা প্রদান অনুষ্ঠানে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু এমপি বলেছেন, উত্তর বঙ্গে উন্নয়ন হয় না এমন কথা বলে উন্নয়ন শুধু উত্তরবঙ্গ কেন্দ্রিকই ছিলো। পদ্মার এপাড়ে কোন উন্নয়নের ছোয়া লাগেনি। 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর দক্ষিণ বঙ্গের উন্নয়নের পরিকল্পনা গ্রহণ করেছেন। সেই জন্য পদ্মা ব্রীজ ও পায়রা বন্দর নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছেন। পদ্মা ব্রিজ ও পায়রা বন্দর নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হলে আমাদের দেশ উন্নয়নে স্বয়ং সম্পুর্ণ হবে। আমাদের দেশের বেকার যুবকরা আর বিদেশে গিয়ে কাজ করতে হবে না। বিদেশ থেকে আমাদের দেশে আসবে কাজ করার জন্য। এছাড়াও দেশের বিভিন্ন স্থানে ১শটি অর্থনৈতিক জোন প্রতিষ্ঠা করা হবে। যার মাধ্যমে দেশের বেকার সমস্যা সম্পূর্ণরূপে সমাধান হয়ে প্রত্যেকেই স্বাবলম্বি হতে পারবে। মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর কর্তৃক বাস্তবায়িত কর্মজীবী ল্যাকটেটিং মাদার সহায়তা তহবিল শীর্ষক কর্মসূচীর আওতায় ঝালকাঠি পৌরসভাধীন উপকার ভোগীদের ভাতা বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। 

তিনি আরো বলেন, নারী সমাজের অভাব অভিযোগ একমাত্র শেখ হাসিনাই উপলব্দি করতে পেরেছেন। এ জন্য তিনি নারীদের বিভিন্ন ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার দিচ্ছেন। ৯৬ সালে ক্ষমতায় আসার পর বিভিন্ন ক্ষেত্রে পিতার নামের সাথে মায়ের নামটিও কার্যক্রমে অন্তর্ভূক্ত করেছেন। নারীদেরকে নারী জাতি থেকে তিনি মাতৃজাতি হিসেবে প্রতিষ্ঠা প্রতিষ্ঠা করেছেন। দেশের স্বার্থে, উন্নয়নের স্বার্থে, নারীর স্বার্থে, মায়ের স্বার্থে আগামী সংসদ নির্বাচনে নৌকায় ভোট দেয়ারও আহŸান জানান তিনি। জেলা প্রশাসক মোঃ হামিদুল হকের সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মোঃ আলতাফ হোসেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন পুলিশ সুপার মোঃ জোবায়েদুর রহমান, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক অ্যাডভোকেট খান সাইফুল্লাহ পনির, পৌর মেয়র লিয়াকত আলী তালুকদার প্রমুখ। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি সিদ্দিকুর রহমান, সালাহউদ্দিন আহমেদ সালেক, জেলা পরিষদ সদস্য শারমিন মৌসুমী কেকা, সদর উপজেলা ভাইসচেয়ারম্যান ইসরাত জাহান সোনালীসহ পৌর কাউন্সিলর ও আওয়ামীলীগের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মী বৃন্দ। এসময় পৌরসভাধীন ৮শ কর্মজীবী নারীকে মাদার ল্যাকটেটিং সহায়তার তহবিল থেকে ভাতা প্রদান করা হয়।