Opu Hasnat

আজ ২৪ সেপ্টেম্বর সোমবার ২০১৮,

সুনামগঞ্জে সংখ্যালঘু মুক্তিযোদ্ধার জায়গা দখলের পায়ঁতারা, সংঘর্ষের আশংকা সুনামগঞ্জ

সুনামগঞ্জে সংখ্যালঘু মুক্তিযোদ্ধার জায়গা দখলের পায়ঁতারা, সংঘর্ষের আশংকা

সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার গৌরারং ইউনিয়নের  পুরান লক্ষণশ্রী গ্রামে সংখ্যালঘু মুক্তিযোদ্ধার পৈত্রিক সম্পত্তি ও ক্রয়কৃত জাগয়া জোরপুর্বকভাবে দখল করার পায়ঁতারয়া এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে যে কোন সময় ঘটতে পারে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ। একটি প্রভাবশালী মহল দীর্ঘদিন যাবত পুরান লক্ষণশ্রী গ্রামের স্বর্গীয় মুক্তিযোদ্ধা মনমোহন দাস তালুকদার এর পরিবারের জায়গা জোরপুর্বকভাবে দখল করার জন্য একটি ক্ষমতাসীন কুচক্র মহল উঠেপড়ে লেগেছে। এনিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে কয়েক দফা ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে।  এই সংঘর্ষের সাথে জড়িয়ে পড়েছে নারীরাও । একপক্ষ ঘর তৈরির জন্য মালামাল নিয়ে যান এবং অন্যপক্ষ তাতে বাদা সৃষ্টি করেন। এতে নারী পুরুষরা দেশীয় অস্ত্র লাঠিসোটা নিয়ে তাদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া লেগেই আছে। এমনকি দু’পক্ষের মধ্যে মামলা মোকদ্দমাতো আদালতে চলমান রয়েছে। আদালতের রায় মানতেও রাজি নয় ক্ষমতাসীন কুচক্রমহলটি। এই নিয়ে এলাকাবাসীর মধ্যে আতংক বিরাজ করছে। 

স্থানীয়ও মামলা সুত্রে জানাযায়, ঘটনাটিকে কেন্দ্র করে কিছুদিন পরপর দু’পক্ষের মধ্যে ঝামেলা এতে এলাকাবাসীর মধ্যে এনিয়ে নানা সমস্যা দেখা দিয়েছে। স্থানীয় ও মামলা সুত্রে জানাযায় বড়ঘাট গ্রামের বাসিন্দা মৃত উসমান গণির ছেলে  মো: আব্দুল মতিনগং ও পুরান লক্ষণশ্রী গ্রামের স্বর্গীয় মুক্তিযোদ্ধা মনমোহন দাস তালুকদার এর পুত্র সুমন দাস তাং গংদের মধ্যে পুরান লক্ষণশ্রী মৌজার জেএলনং এস এ-৩৮, হালে-৩৯, খতিয়াননং এসএ-১০৩, ডিপি-৫৯৯, দাগ নং এসএ-২০৩৪, হালে -২৩৮৭, পরিমান-০, ১২ একর আমন রকম ভুমি। যার চতুঃ সীমা: (১) হচ্ছে পূর্বে সিএন্ডবির রাস্তা, পশ্চিমে মেরাজুল ইসলাম, উত্তরে-আমমোক্তারকৃত দাগের অবশিষ্ঠ ভুমি, দক্ষিণে-সরকারী রাস্তা। ইহাতে এসএ ২০৩৪, হালে-২৩৮৭ নং দাগে মোং ০.০৫৭৫একর আমন রকম ভুমি ও যার চতুঃ সীমাঃ(২)পূর্বে আমমোক্তারকৃত দাগের অবশিষ্ট ভূমি, পশ্চিমে-সিএন্ডবির রাস্তা,উত্তরে- আমমোক্তারকৃত দাগের অবশিষ্ট ভূমি, দক্ষিণে হাজী লাল মামুদ উচ্চ বিদ্যালয়ের রাস্তা ইহাতে এস এ ২০৩৪, হালে-২৩৮৭ নং দাগে মোং ০.০৬২৫ একর আমন রকম ভূমি। এখানে মোট ০.১২একর আমন রকম ভুমি। এইসব জায়গা নিয়ে আব্দুল মতিন গং মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের উপর অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট সুনামগঞ্জ আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন যার মামলা নংবিবিধ -৭৬/২০১৮(সদর)ধারা: ফৌ:কা:বি:১৪৪ধারা। কিন্তু মহামান্য আদালত গত ১৬/৫/২০১৮ইং তারিখে মামলার আদেশ প্রদান করেন । আদেশে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের কাগজ পত্র পর্যালোচনা করে সন্তোষজনক পেয়ে মামলাটিকে নতিজাতের আদেশ দেন। কিন্তু সেই আদেশের বলে গত ১২/৮/২০১৮ইং রোজ রবিবার সকালে নিজ ভূমিতে ঘর তৈরি করার জন্য ভোগ দখল থাকা অবস্থায় মালামাল নিয়ে আসলে ঐ ক্ষমতাসীন আব্দুল মতিন ও পুরান লক্ষণশ্রী গ্রামের গোলাম হুসেন গংরা মুক্তিযোদ্ধা পরিবারে দখল কৃত ভুমিতে ঘর তৈরি করতে দেবেনা বলে  দেশি ও লাঠি সুটা এবং কিছু মহিলা নিয়ে দাড়ালো অস্ত্র দা হাতে নিয়ে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তানদের বাদা সৃষ্টি করে ও জানে মেরে ফেলার হুমকি প্রদান করে দাওয়া শুরু করে। পরে তাদের দু পক্ষের মধ্যে দাওয়া পাল্টা দাওয়ার এক পর্যায়ে স্থানীয় পঞ্চায়েত এর ভুমিকায় বিষয়টি বিচারের মাধ্যমে সমাধানের আশ্বাস প্রধান করেন এলাকার মুরব্বিয়ান। এই নিয়ে এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে যে কোন মুহুর্তে ঘটতে পারে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ। প্রশাসনের ভুমিকায় বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন এমনটি প্রত্যাশা সকলের।

এব্যাপারে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. শহিদুল্লাহ জানান, বিষয়টি অবগত হয়ে দু’পক্ষের লোকজনদের কাগজ পত্র দেখেছি এবং মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের কাগজ পত্র সঠিক পেয়েছি। যদি কেউ আইন অমান্য করে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।