Opu Hasnat

আজ ২৩ সেপ্টেম্বর সোমবার ২০১৯,

দামুড়হুদায় বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান! চুয়াডাঙ্গা

দামুড়হুদায় বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে অবস্থান!

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার কুড়ুলগাছি গ্রামে বিয়ের দাবী নিয়ে প্রেমিকের বাড়িতে ১২ঘন্টা  অবস্থান করে ইউনিয়ন পরিষদে সালিস বৈঠক করে বিয়ে প্রেমিক বিযেতে রাজি না হওয়ায় অষ্টম শ্রেনী পড়ুয়া স্কুল ছাত্রীর বিয়ে ভেস্তে গেল। শনিবার সকাল ৭টার দিকে কুড়ুলগাছি পুকুর পাড়ার মুক্তিযোদ্ধা আনছার আলীর ছেলে আনিসুর রহমান আনিসের বাড়িতে বিয়ের দাবী নিয়ে অবস্থান করে একই গ্রামের হাসপাতাল পাড়ার জহিরুল হকের মেয়ে অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী উম্মে কুলসুম। 

পরে সন্ধায় বিয়ের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার প্রতিশ্রুতিতে স্কুল ছাত্রীকে বাড়ী ফিরিয়ে দেওয়া হয়।    উম্মে কুলসুম জানায়, চুয়াডাঙ্গা দামুড়হুদা উপজেলার কুড়ুলগাছি ইউনিয়নের পুকুর পাড়ার মুক্তিযোদ্ধা আনছার আলীর ছোট ছেলে আনিসুর রহমান আনিস (২৪) সাথে প্রায় দীর্ঘ ৩ বছর যাবত সম্পর্ক গড়ে ওঠে একই গ্রামের হাসপাতাল পাড়ার জহিরুলের অষ্টম শ্রেণী পড়ুয়া কন্যা কুলসুম খাতুনের (১৫)। এরই সুত্র ধরে আনিস বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে বিভিন্ন সময় তার দৈহিক সম্পর্ক গড়ে তোলে । হঠাৎ শুক্রবার রাতে জানতে পারি আনিস আমাকে বিয়ে না করে গোপনে অনত্র বিয়ের জন্য তৈরি হচ্ছে। এসময় কুলসুম আনিসকে বিয়ের জন্য চাপসৃষ্টি করলে সে বিয়ে করতে অস্বিকার করে। কোন উপয়উন্ত না পেয়ে শনিবার সকালে বিয়ের দাবীতে আনিছের বাড়ীতে উঠে। সারাদিন তার বাড়ীতে অবস্থান করার পর সন্ধায় স্থানিয়রা তাকে ইউনিয়ন পরিষদে সালিস বৈঠক করে বিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করা হবে বলে তাকে বাড়ীতে পাঠিয়ে দেয়। রোববার ইউনিয়ন পরিষদে ইউপি চেয়ারম্যানসহ উভয় পক্ষ সালিশ বৈঠক বসলে পেমিক আনিসসহ তার পরিবার বিয়েতে রাজি না হলে শালিস বৈঠক ভেস্তে যায়।   

কুড়ালগাছি ইউপি চেয়ারম্যান শাহ এনামুল করিম ইনু জানান, শালিশ বৈঠকে উভয়ের প্রেমের বিষয়টি সঠিক প্রমানিত হলেও ছেলে পক্ষ বিয়েতে রাজিনা হওয়ায় শালিস বৈঠক ভেস্তে যায়। তবে মেয়ে পক্ষ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছিল। 

এই বিভাগের অন্যান্য খবর