Opu Hasnat

আজ ১৬ ডিসেম্বর রবিবার ২০১৮,

টানা বর্ষনে বানভাসি কেরালা, নিহত ২৬ আন্তর্জাতিক

টানা বর্ষনে বানভাসি কেরালা, নিহত ২৬

ভারতের কেরালার বন্যা পরিস্থিতিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাড়িয়েছে ২৬ জনে। শুক্রবারও ভারী বর্ষণের পূর্বাভাস রয়েছে। উদুক্কি, ওয়ানাড়, এর্নাকুলাম-সহ রাজ্যের অধিকাংশ জেলায় ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণ চলেছে রাতভর। চূড়ান্ত সতর্কতা জারি করেছে প্রশাসন। উদুক্কি, চেরুথানি বাঁধের গেট খুলে দেওয়ায় পেরিয়ার নদীর দুই পারের বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত। দুর্গতদের উদ্ধারের কাজ চালাচ্ছে এনডিআরএফ, সেনা, নৌবাহিনী, পুলিশ ও দমকল। বহু দুর্গতকে উদ্ধার করে ত্রাণ শিবিরে আশ্রয় দেওয়া হয়েছে। শুরু হয়েছে ত্রাণ বিলির কাজ। এটাকে ৫০ বছরের ভয়াবহতম বন্যা বলে দাবি করেছেন কেরালার সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী কে জে আলফোন্স।  

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী কেরালার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়নকে ফোন করে সব রকম সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছেন। মুখ্যমন্ত্রীও সংশ্লিষ্ট সব দফতরের সঙ্গে ঘনঘন বৈঠক করে পরিস্থিতি পর্যালোচনা এবং তার মোকাবিলায় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিচ্ছেন। তিনি বলেন, ভয়াবহ পরিস্থিতি। বহু মানুষ বিপর্যস্ত। তাঁদের উদ্ধার ও ত্রাণের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। কুন্নুর বিশ্ববিদ্যালয়ের সব পরীক্ষা স্থগিত রাখা হয়েছে।

টানা ছ’দিন ধরে নাগাড়ে ভারী ও অতিভারী বৃষ্টি। তার জেরে এমনিতেই নদীগুলির উপচে পড়ার মতো পরিস্থিতি। তার সঙ্গে অধিকাংশ বাঁধগুলি টইটম্বুর হয়ে ওঠায় জল ছাড়তে বাধ্য হয়েছে প্রশাসন। অধিকাংশ বাঁধ থেকে বিপুল জল ছাড়া হচ্ছে। এই সাঁড়াশি চাপে কেরালার বিস্তীর্ণ এলাকা কার্যত জলের তলায়। বহু বাড়িঘর ডুবে গিয়েছে। ঘরবাড়ি ছেড়ে কয়েক হাজার ত্রাণ শিবিরে আশ্রয় নিয়েছেন দুর্গতরা। আনন্দবাজার