Opu Hasnat

আজ ১৯ ডিসেম্বর বুধবার ২০১৮,

তীব্র পেট ব্যাথা নিয়ে হাসপাতালে সানি লিওন বিনোদন

তীব্র পেট ব্যাথা নিয়ে হাসপাতালে সানি লিওন

একটি রিয়েলিটি শোর শুটিং চলছিল। হঠাৎই বলিউড অভিনেত্রী সানি লিওনের পেটে তীব্র ব্যথা শুরু হয়। এরপর তাঁকে জরুরি ভিত্তিতে কাশীপুরের ব্রিজেশ হাসপাতালে নেওয়া হয়। ভর্তির পর পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে ডাক্তার জানান, সানির অ্যাপেনডিক্সের (উপাঙ্গ) কারণেই এ তীব্র ব্যথা।

হঠাৎই সাবেক এ পর্নো তারকা ও বলিউড অভিনেত্রীর অসুস্থতায় উদ্বেগ ছড়িয়ে পড়ে বলিউডপাড়ায়। গত বৃহস্পতিবার তাঁকে ভর্তি করা হয়। তবে আজ জানা গেছে, তিনি আগের চেয়ে বেশ ভালো আছেন। ভারতের সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া এ খবর জানায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, সানি লিওন এখন আগের চেয়ে সুস্থ আছেন। খুব শিগগিরই তাঁকে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দেওয়া হবে। তাঁকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে, তবে সবকিছুই নিয়ন্ত্রণে আছে।

সানি লিওনের চিকিৎসক আরো জানান, তাঁকে আরো কিছুদিন বিশ্রামে থাকতে হবে। যত দিন না পুরোপুরি সুস্থ হচ্ছেন, তত দিন নো শুটিং!

ভক্তরা সানি লিওনের দ্রুত আরোগ্য কামনা করেছেন।

কয়েক দিন আগে মুক্তি পায় সানি লিওনের জীবনীভিত্তিক ওয়েব সিরিজ ‘করণজিৎ কউর : দ্য আনটোল্ড স্টোরি অব সানি লিওন’। এ নিয়ে দর্শক-ভক্ত মহলে এখনো চলছে নানা আলোচনা।

অনেকেই আক্ষেপ করেছেন, সানির জীবনের কত ‌আকর্ষণীয় ঘটনাই নাকি দেখা যায়নি এতে! কেউ বলছেন, বহু সত্যি প্রকাশ্যে এলো! আক্ষেপ আর তৃপ্তির ঢেঁকুর ভক্তদের। তবে নিজের বায়োপিক দেখে মন খারাপ হয়েছে বলে জানিয়েছিলেন সানি।

১০ বছর আগে মারা যান বলিউড অভিনেত্রী ও সাবেক পর্নো তারকা সানি লিওনের মা। এর দুই বছর পরই ২০১০ সালে ক্যানসারে দীর্ঘ দিন ভোগার পর ইহলোক ত্যাগ করেন তাঁর বাবা। বায়োপিকে সেটা দেখেই মন খারাপ হয় লাস্যময়ী এ অভিনেত্রীর। হাহাকারে ভরে যায় সানির বুক!

কানাডাবাসী মধ্যবিত্ত শিখ পরিবারের মেয়ে সানি লিওন কীভাবে পর্নো ইন্ডাস্ট্রিতে জনপ্রিয় হয়েছিলেন, কীভাবে সেই পেশা ছেড়ে বলিউডে প্রবেশ করলেন, এই সব নিয়েই তৈরি ‘করণজিৎ কউর : দ্য আনটোল্ড স্টোরি অব সানি লিওন’।

সানি লিওন এখন বেশ জনপ্রিয়।  এক সময় পর্নো তারকা ছিলেন। এরপর সেই পেশা ছেড়ে বলিউডে নিজের জায়গা পাকা করেছেন নিজের গুণের জোরেই। ভারতের মতো সংস্কারাচ্ছন্ন দেশে মানুষের মন জয় করা চাট্টিখানি কথা নয়! অভিনয়ের পাশাপাশি করছেন সঞ্চালনাও। দত্তক নেওয়া তিনটি সন্তান রয়েছে তাঁর। সানির এই জীবনভ্রমণের গল্পই দেখানো হয়েছে এই ওয়েব সিরিজে।