Opu Hasnat

আজ ১৪ নভেম্বর বুধবার ২০১৮,

নকশা ছাড়াই পার্বতীপুর শহরে বহুতল ভবন, ভেঙ্গে পড়ার আশংকা দিনাজপুর

নকশা ছাড়াই পার্বতীপুর শহরে বহুতল ভবন, ভেঙ্গে পড়ার আশংকা

দিনাজপুরের পার্বতীপুরে অনুমোদিত নকশা ছাড়াই বহুতল ভবন নির্মান করায় ভেঙ্গে পড়ার আশংকায় আতংকে দিন কাটাচ্ছেন প্রতিবেশীরা। ঘটনাটি ঘটেছে দিনাজপুরের পার্বতীপুর পৌরসভার নুরনগর মহল্লায়।

জানা গেছে, পার্বতীপুর পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের পার্বতীপুর মৌজার ২৮২৪ দাগে মৃত জনৈক মোঃ তোজাম্মেল হোসেনের পুত্র মোঃ নজমুল হোসেন (৭০) তার ৮শতক জমিতে দীর্ঘদিন যাবৎ আধা-পাকা বাড়ি নির্মান করে স্ব-পরিবারে বসবাস করে আসছেন। সম্প্রতি তার বাসা বাড়ি ঘেষে একই মহল্লার মৃত নছির উদ্দীন আকন্দ’র পুত্র আব্দুল্লাহেল বাকী(৬৮) পৌর কর্তৃপক্ষের অনুমোদিত নকশা ছাড়াই একটি বহুতল আবাসিক ভবনের নির্মান কাজ শুরু করেছেন। ত্রুটি পূর্ণ নকশায় বহুতল আবাসিক ভবন নির্মানের ফলে তা যে কোন মূহুর্তে প্রতিবেশীদের বাড়ির উপর অথবা মহল্লায় যাতায়াতের একমাত্র সড়কের উপর ভেঙ্গে পড়তে পারে। এ নিয়ে মহল্লা বাসীর মাঝে চাপা আতংক বিরাজ করছে। এদিকে এ অবৈধ নির্মাণ কাজ বন্ধ করতে এলাকাবাসী গত ০২-৫-১৭ তারিখে পৌর মেয়রের নিকট এবং ০৭-১০-২০১৭ তারিখে পার্বতীপুর মডেল থানায় পৃথক দুটি অভিযোগ দায়ের করে। এসব অভিযোগের প্রেক্ষিতে পুলিশ বিরোধ নিষ্পত্তির জন্য গত ২৩ জানুয়ারী উভয় পক্ষকে থানায় শালিস বৈঠকে ডাকেন।  বৈঠকে পুলিশ অবিলম্বে নবনির্মিত ভবনটি ভেঙ্গে ফেলার নির্দেশ দেন। তা সত্ত্বেও বিবাদী আব্দুল্লাহেল বাকী(৬৮) শালিসের সিদ্ধান্ত উপেক্ষা করে ভবন নির্মানের কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। 

এ ব্যাপারে পার্বতীপুর পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত মেয়র মন্জুরুল আজীজ পলাশ বলেন, মেয়র সাহেব দেশের বাইরে অবস্থান করায় আমি গত ১জুলাই থেকে ভারপ্রাপ্ত মেয়রের দায়িত্ব পালন করছি। তাছাড়াও আমি এতদিন অসুস্থ্য থাকায় পৌর কার্যালয়ে যেতে পারিনি।  সে কারণে এ ব্যাপারে আমি তেমন কিছু জানি না। তবে ভবন নির্মান নিয়ে আদালতে মামলা চলছে হয়েছে। 

ঘটনার বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রেহানুলহক জানান, আমি বিষয়টি অবগত নই।  আপনার মাধ্যমে এখন জানলাম। বিষয়টি দেখার জন্য মেয়র সাহেবকে বলবো। তবে অনুমোদিত নকশা ছাড়া পৌর কর্তৃপক্ষ কোন ভাবে বহুতল ভবণ নির্মানের অনুমতি দিতে পারেন না।