Opu Hasnat

আজ ১৭ নভেম্বর শনিবার ২০১৮,

চুয়াডাঙ্গায় ভাইয়ের রডের আঘাতে আহত ছোট ভাই অবশেষে মারা গেলেন, আটক ৪ চুয়াডাঙ্গা

চুয়াডাঙ্গায় ভাইয়ের রডের আঘাতে আহত ছোট ভাই অবশেষে মারা গেলেন, আটক ৪

চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার কন্দর্পপুর  গ্রামে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের কারনে চাচাতো বড় ভাইয়ের রডের আঘাতে আহত ছোট ভাই গিয়াস উদ্দিন (৪২) চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকা বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে শনিবার দিনগত রাতে মারা গেছে। নিহত গিয়াস উদ্দিন জীবননগর উপজেলার হাসাদহ ইউনিয়নের কন্দর্পপুর গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীনের ছেলে। 

এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ কন্দর্পপুর  গ্রাম থেকে ৪ জনকে  আটক করেছে। এরা হলো ওই গ্রামের আনোয়ার হোসেনের ছেলে জাহাঙ্গীর  আলম (২৭) ও জিহাদ (২২), একই গ্রামের আবজেল হোসেনের ছেলে আমিনুর রহমান (৫৫) ও দুলাল ইসলাম (২৪)।

জীবননগর  থানার অফিসার ইনচার্জ মাহমুদুর রহমান জানান, নিহত গিয়াস উদ্দিনের সঙ্গে কন্দর্পপুর  গ্রামে বাড়ির পাশে রাস্তার  জমি নিয়ে তার চাচাতো ভাই আনোয়ার হোসেনের মতদ্বন্দ সৃষ্টি হয়। ওই জমি নিয়ে এক পর্যায় উভয়পক্ষের মধ্যে মিমাংসা হয়ে যায়। গত বুধবার (৪ জুলাই) সকালে রাস্তার জমি নিয়ে আবারও তাদের মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়। এরই এক পর্যায়ে আনোয়ার ও তার ছেলেরা একত্রিত হয়ে গিয়াস উদ্দিন ও তার স্ত্রী এবং ভাইদের মারধর করে। আনোয়ার হোসেন  রড  দিয়ে তার চাচাতো ভাই গিয়াস উদ্দিনের মাথায় আঘাত করলে সে মারাত্বভাবে আহত হয়। জখম অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে জীবননগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার অবস্থা গুরুতর হওয়ায়  ওই দিন বিকাল ৪টার দিকে তাকে যশোর আড়াইশ শয্যার হাসপাতালে স্থানান্তর করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক, সেখানেও তার অবস্থার কোন উন্নতি না হওয়ায় সেখানকার কত্যব্যরত চিকিৎসক তাকে ঢাকা বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ হাসাপাতলে পাঠায়। সেখানেই গিয়াস উদ্দিন শনিবার দিনহত রাতে মারা যান। 

তিনি আরও জানান, অভিযুক্তরা গাঢাকা দিয়েছে। ৭জনের বিরুদ্ধে মামলার হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে ৪ জনকে আটক করা হয়েছে।