Opu Hasnat

আজ ১৪ ডিসেম্বর শুক্রবার ২০১৮,

সৈয়দা রূখসানা জামান শানু’র কবিতা ‘হে কবি’ শিল্প ও সাহিত্য

সৈয়দা রূখসানা জামান শানু’র কবিতা ‘হে কবি’

(অগ্রজ কবি অসীম সাহার সম্মানে)

সৃজনের সাদা কাগজে বা র্স্মাট ফোনে 
চিত্র তৈরী কর অপরূপ বর্ণমালার গল্পে 
তাতে থাকে নানা রঙের তাজা ফুল
আর শব্দে শব্দে জাদুকরী ভাটয়ালী সুর
দিনে রাতে ভাবনার সাগরে ডুব দিয়ে 
কত অমূল্য মুক্তোসব আন তুলে
কখনও কুয়াশার চাদর ছিঁড়ে ছিঁড়ে
কখনও  ছায়া রোদ্দুরের ডালে ডালে
সাদা-নীলাকাশে মেঘেদের আড়ালে
উড়ে বেড়াও কত কবিতার পাটি বিছিয়ে 
ক্ষুধা আর ক্লান্ত সময়ের কাছে
লেখনীর পথ কখনও যায় না ভুলে
যেখানে উঠে না যখন উষার রবি 
সেখানেও পৌছে যাও তুমি
সশ্রদ্ধ সালাম জানাই হে কবি।

সমাজিক ক্ষতির বিরূদ্ধে 
কতশত ঝুঁকি নিয়ে
কত হুঁশয়ারী কাব্যিক সংকেত দেশ জুড়ে
কত পরখ কারণে অকারণে 
কত সহ্য কত ছোবল পদতলে
খেয়েও কবি এগিয়ে যায়
চাপা কান্নার সব রঙ রূপ দেখ ফেল অবলীলায়
কবির স্বাধীনতার কাছে সব স্বাধীনতা হেরে যায় 
তোমার অন্তরের চোখে ফোটে আঁধারকলি 
কানে কানে তোমার এ কথাটিই বলি 
মুরগীর গোশত ভরা হাড়ী 
আর নারীর শাড়ী
কিশোরী কিংবা বুড়ি
হউক পায়ে শিকলের বেড়ি
সবেযে তোমার কাছে অপরূপ সুন্দরী।

সব গান কবিতা না হলেও সব কবিতাই গান
এ শিল্পে আছে  সমাজের সব কিছুর প্রাণ
যে কলম জাগায় ঘুমিয়ে থাকাদের ভুবন 
চিনতে শেখায় আলো-আঁধারির দৈনন্দিন
মহাবিশ্বে স্যাাটেলাইট পৌঁছে খবর আনার আগে
সেখানে পৌঁছে যাও তুমি অন্তরের চক্ষুতে ভর করে 
এতো খনার বচন এতো রংগন্ধ ছড়িয়ে
উজাড় করে দিয়েছো সকলের জীবনে
তুমি কীভাবে পৃথিবী ছেড়ে যাবে চলে
পদ উন্নতীর পর অবসরের সময় যখন আসে  
সেই অবসরে সাবেক হয়ে যায় সকলে 
কখনও সাবেক হবে না তুমি 
দিলাম এ প্রতিশ্রূতি আমি
এ কথাটি মনে রেখ হে কবি । 


২৫/১১/২০১৭খ্রি: শনিবার।