Opu Hasnat

আজ ২৫ জুন সোমবার ২০১৮,

ব্রেকিং নিউজ

রাজবাড়ীর এসপি মিলির নির্দেশনায় জানজটমুক্ত দৌলতদিয়া রাজবাড়ী

রাজবাড়ীর এসপি মিলির নির্দেশনায় জানজটমুক্ত দৌলতদিয়া

রাজধানী ঢাকা থেকে প্রিয়জনের সাথে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে কর্মস্থল থেকে বাড়ি ফিরছে মানুষ।সরেজমিনে গতকাল বুধবার সকালে রাজবাড়ী দৌলতদিয়া লঞ্চ ও ফেরি ঘাটে উপচে পড়া ভীর লক্ষ করা গেছে। 
এদিকে দৌলতদিয়া ঘাটে জানজট নিরসনে বুধবার সকালে রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার আসমা সিদ্দিকা মিলি, অতিরিক্ত পুলি, সুপার মোহাম্মদ রাকিব খান, মোঃ রেজাউল করিম, গোয়ালন্দ ঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল কালাম আজাদ ঘাট এলাকা পরিদর্শন করেন। 

রাজবাড়ীর পুলিশ সুপার আসমা সিদ্দিকা মিলি জানান, এবার ঈদে মানুষে ঘাটে কোন ভোগান্তি হবে না। আমি নীজে প্রতিদিন ঘাট এলাকা তদারকি করবো। বুধবারও ঘাট এলাকায় আমি পরিদর্শন করেছি জানজট নিরসনে কাজ করেছি। এবার ঘাটে তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। দৌলতদিয়া ঘাটে কোন প্রকার ভোগান্তি ছারাই মানুষ বাড়ি ফিরতে পারছে বলে জানিয়েছেন যাত্রীরা।
রাজধানী ঢাকা থেকে আসা ফরিদপুরের আজমিরি পরিবহনের যাত্রী হাসিনা বেগম জানান, নদীর ওপারে মানিগঞ্জের পাটুরিয়া ঘাটে দেড় ঘন্টা বসে থাকতে হয়েছে জানজটে। নদী পার হয়ে এপারে কোন জানজট নেই ওপারে কষ্ট হলেও ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে বাড়ি যেতে আর মাত্র দেড় থেকে দুই ঘন্টা লাগবে তাই অনেকটা স্বস্তি পাচ্ছি।

দৌলতদিয়া ঘাটে এ বছর জানজট নিরসনে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম মন্ডল একটি স্বেচ্ছাসেবক দল গঠন করে দিয়েছেন যারা সর্বদা ঘাট এলাকায় জানজট নিরসনে কাজ করছে।
দৌলতদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম মন্ডল জানান, মানুষ যাতে শান্তিতে বাড়ি যেতে পারে সে জন্য আমরা সর্বদা প্রশাসনের পাশাপাশি মাঠে থাকবো।
বিআইডবিøটিসি দৌলতদিয়া ঘাটের ব্যবস্থাপক সফিকুল ইসলাম জানান, দৌলতদিয়া পাটুরিয়া নৌরুটে বর্তমানে ১৯ টি ফেরি ও ৩৩ লঞ্চ দিয়ে পারাপার করা হচ্ছে। এভাবে চললে আশা করা যাচ্ছে পারাপারে কোন সমস্যা হবে না।