Opu Hasnat

আজ ২১ আগস্ট মঙ্গলবার ২০১৮,

কালকিনিতে ছাত্রদল নেতার বহিস্কার নিয়ে ধুম্রজাল সৃষ্টি মাদারীপুর

কালকিনিতে ছাত্রদল নেতার বহিস্কার নিয়ে ধুম্রজাল সৃষ্টি

মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলা ছাত্রদলের যুগ্নসম্পাদক মোঃ বেলায়েত হোসেন রিমনকে বহিস্কার করা নিয়ে ধুম্রজাল সৃষ্টি হয়েছে। এ নিয়ে গত কয়েকদনি ধরে নানান তালবাহানা দেখা দিয়েছে ছাত্রদল নেতাদের মাঝে। এ দিকে বিষয়টি নিয়ে উপজেলার বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষের মাঝে ব্যাপক সমালোচনার ঝড় উঠেছে।

জানাগেছে, দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে উপজেলা ছাত্রদলের যুগ্নসম্পাদক মোঃ বেলায়েত হোসেন রিমকে গত ২২ মে জেলা ছাত্রদলের সাধারন সম্পাদক অহেদুজ্জামান খান অহিদের একক সাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে সাময়িক বহিস্কার ঘোষনা করা হয়। তার ওই একক সাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তি দেখে অনেক নেতাকর্মীরা হতবাক হয়ে যান। ওই প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ্য থাকে যে বেলায়েত হোসেন রিমনকে জেলা ছাত্রদলের সর্বসম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত মোতাবেক বহিস্কার করা হয়। এদিকে ওই বহিস্কারের বিষয়টি ভুল শিকার করে বৃহস্পতিবার জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মোফাজ্জেল হোসেন খান সাক্ষরিত একটি প্রেস বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেন। তাতে উল্লেখ্য থাকে যে তাকে দলের শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে বহিস্কার করা হয়নি। ভুলক্রমে সাধারন সম্পাদক প্রেস বিজ্ঞপ্তি দিয়ে উপজেলা বিএনপির কাছে পাঠিয়েছে। তবে এ বিষয়টি নিয়ে উভয় সংকটে ভুগছেন বিএনপি ও ছাত্রদলের তৃনমুল নেতাকর্মীরা। এবং কি ওই দুই নেতার দুই রকম প্রেস বিজ্ঞপ্তি নিয়ে চরম বিতর্ক দেখা দিয়েছে। এ বহিস্কার নিয়ে জেলা ছাত্রদলের সভাপতি ও সম্পাদকের ভিন্ন দুইটি প্রেস বিজ্ঞপ্তি নিয়ে উপজেলায় সর্বত্তই চলছে এখন সমালোচনার ঝড়।

কলেজ ছাত্রদলের সভাপতি ইকরামুল ইসলাম লিটন বলেন, প্রেস বিজ্ঞপ্তি কোনটা সত্য কোনটা মিথ্যা তা বলতে পারবনা।

জেলা ছাত্রদলের সম্পাদক অহেদুজ্জামান খান অহিদের সাথে এ বিষয় একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মোফাজ্জেল হোসেন খান বলেন, রিমনকে শোকজ করা হয়েছিল বহিস্কার করা হয়নি। ওটা সম্পাদক ভুলক্রমে করেছেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক মোঃ মাহাবুব হোসেন মুন্সি বলেন, এ বিষয়টি ছাত্রদলের বিষয়। তারা দুই নেতাই বলতে পারবে ঘটনাটি মুলত কি।