Opu Hasnat

আজ ২৫ জুন সোমবার ২০১৮,

ব্রেকিং নিউজ

বশেমুরবিপ্রবির শিক্ষা ব্যবস্থার বেহাল অবস্থা ১

শিক্ষক ও ক্লাশরুম সংকটে বশেমুরবিপ্রবি : শিক্ষা কার্যক্রম চলছে গ্যারেজ ও টীনশেড রুমে শিক্ষাগোপালগঞ্জ

শিক্ষক ও ক্লাশরুম সংকটে বশেমুরবিপ্রবি : শিক্ষা কার্যক্রম চলছে গ্যারেজ ও টীনশেড রুমে

২০১১ সালে মাত্র ৫টি বিভাগ নিয়ে যাত্রা শুরু করে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। কিন্তু রাতারাতি ৫টি বিভাগ থেকে বর্তমানে ৩১টি বিভাগে উন্নীত হলেও শিক্ষক নিয়োগ পর্যাপ্ত পরিমাণ বৃদ্ধি না পাওয়ার কারনে বর্তমানে কিছু কিছু বিভাগে ১/২জন শিক্ষক-শিক্ষিকা দিয়েই চালানো হচ্ছে শিক্ষা কার্যক্রম। শিক্ষার্থীরা ক্লাশরুম থেকে কী শিখছেন সেটাই এখন অভিভাবকদের প্রশ্ন।

কিছু কিছু বিভাগে ২০০ জন করে শিক্ষার্থী প্রতি বছর ভর্তি করা হচ্ছে। কিন্তু সে তুলনায় নেই পর্যাপ্ত পরিমাণে ক্লাশরুম। গাড়ীর গ্যারেজ ও টীনশেড ক্লাশরুমে চলেছে জাতির পিতার নামে ভার্সিটির সোনালী ছেলে-মেয়েরা পড়াশুনা। তপ্ত রৌদ্রে বালুর উপর টীনশেডে ঘরে ১০০/২০০ জন শিক্ষার্থীরা কতটুকু মেধা বিকশিত করতে পারবেন সেটাই অভিবাবক মহলের প্রশ্ন। রাতারাতি এত আসন সংখ্য ও বিভাগ বৃদ্ধি করার রহস্য অভিবাবকসহ জাতির কাছে এখন প্রশ্নবিদ্ধ।

এ বিষয়ে বশেমুরবিপ্রবির ভিসি প্রফেসর ড. খন্দকার নাসির উদ্দীনের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, আমার অল্প ছেলে মেয়ে ভালো লাগে না। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় লোকসংখ্যা নেবার দিক থেকে পঞ্চম স্থান অধিকার করে সুনাম বৃদ্ধি করেছে। আগামীতে ক্লাসরুম, আবাসন সমস্যাসহ সকল ধরনের সমস্যার সমাধান করা হবে।

গোপালগঞ্জে অবস্থিত জাতির পিতার নামে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়টি এমনি বেহাল অবস্থায় চলছে সকল কার্যক্রম। বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যক্রম দেখে মনে হয় এ অবস্থা দেখার যেন কেউ নেই। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ব্যবস্থা, ক্লাসরুম সংকট, আবাসন সমস্যাসহ সকল ধরনের সমস্যার সমাধান ও শিক্ষার সুষ্ঠ পরিবেশ ফিরিয়ে আনতে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রীর আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন সাধারন ছাত্র-ছাত্রীসহ অভিজ্ঞ মহল।