Opu Hasnat

আজ ২০ জুলাই শুক্রবার ২০১৮,

পাইকগাছায় চিংড়ি ঘের দখল-পাল্টা দখল, থানায় অভিযোগ খুলনা

পাইকগাছায় চিংড়ি ঘের দখল-পাল্টা দখল, থানায় অভিযোগ

পাইকগাছায় একটি চিংড়ি ঘের দখল পাল্টা দখলের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার সন্ধ্যায় বাইশার আবাদ মৌজায় আশ্রয় প্রকল্পের পাশে। এ নিয়ে দুটি পক্ষ একে অপরের বিরুদ্ধে পাল্টাপাল্টি থানায় অভিযোগ করছে। 

যুবলীগনেতা অনুপ অভিযোগ করেছে, এলাকাবাসীর কাছ থেকে ডিড নিয়ে শান্তিপূর্ণভাবে ভোগ দখল করে আসছিলাম। পরবর্তীতে লীজ ঘেরটি পোনা ব্যবসায়ী তোবারক হোসেন রবিবার সন্ধ্যায় দখল করে নিয়েছেন। 

অপর দিকে, পোনা ব্যবসায়ী তোবারক হোসেনের অভিযোগ এফসিডিআই প্রকল্পের নালিশী সম্পত্তির উপর আমি ২০১২ সাল হতে চিংড়ি ঘের করে আসছি। যা ২০১৫ হতে ২০১৯ সাল পর্যন্ত চুক্তি মোতাবেক সরকারি রাজস্ব প্রদান করেছি। পথিমধ্যে যুবলীগনেতা অনুপ কুমার ঘোষ আমার চিংড়ি ঘেরটি জোরপূর্বক দখলে নেয়। রোববার আমি আমার চিংড়ি ঘেরটি উদ্ধার করে নিজের নিয়ন্ত্রণে নিয়েছি। এ ঘটনায় থানায় একটি অভিযোগ হয়েছে। 

প্রাপ্ত সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার মঠবাটী গ্রামের তারাই সরদারের ছেলে পোনা ব্যবসায়ী তোবারেক হোসেন ভুট্টো ২০১২ সাল হতে বাইশারাবাদ মৌজায় ২টি খন্ডে বিভক্ত করে ৪২ বিঘা জমিতে চিংড়ি ঘের করে আসছে। যার মধ্যে প্রথম খন্ডে রয়েছে ৩৫ বিঘা এবং দ্বিতীয় খন্ডে রয়েছে সাড়ে ৭ বিঘার ঘের। ২০১৫ সালে  তোবারেক হোসেন পানি উন্নয়ন বোর্ডের আওতাধীন বাস্তবায়িত এফসিডিআই প্রকল্পের ১৬৬, ১৬৭, ১৬৮, ১৬৯, ১৭০ ও ২০৮ দাগে ৬.৫০ একর জমি চুক্তিবদ্ধ হয়ে সরকারি রাজস্ব প্রদান করার মাধ্যমে লীজ ঘের করে আসছে। যার মধ্যে প্রথম খন্ডে এফসিডিআই প্রকল্পের ১২ বিঘা এবং এলাকাবাসীর কাছ থেকে ডিড মূলে লীজ নেয়া রয়েছে আনুমানিক ২৩ বিঘা। এছাড়া দ্বিতীয়খন্ডে রয়েছে ৯ বিঘার ঘের। যার মধ্যে এফসিডিআই প্রকল্পের সাড়ে ৭ বিঘা এবং জমির মালিকদের কাছ থেকে ডিড নেয়া দেড় বিঘা। তোবারক হোসেন শান্তিপূর্ণ ভাবে উক্ত লীজ ঘের পরিচালনা করে আসছিল। পথিমধ্যে ২০১৫ সালের শেষের দিকে প্রায় ১শ মণ কর্তনকৃত ধান সহ গদাইপুর গ্রামের মৃত নরেন্দ্রনাথ ঘোষের ছেলে যুবলীগনেতা অনুপ কুমার ঘোষ দ্বিতীয় খন্ডের লীজ ঘেরটি  আকস্মিক দখল করে নিলে তোবারক হোসেনের সাথে বিরোধ দেখা দেয়। বিষয়টি ঐ সময় থানা পুলিশের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ পর্যন্ত গড়ায়। যদিও বিষয়টি শেষ পর্যন্ত অমীমাংসিত থেকে যায়। অবশেষে গত রোববার তোবারক হোসেন ভুট্টো যুবলীগনেতা অনুপের দখলে থাকা দ্বিতীয়খন্ডের চিংড়ি ঘেরটি উদ্ধার করে নিজের নিয়ন্ত্রণে নিয়েছেন বলে তোবারক নিজেই জানিয়েছেন। উদ্ধারের এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুটি পক্ষ একে অপরের বিরুদ্ধে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করছে। যুবলীগনেতা অনুপ কুমার জানান, আমি প্রশান্ত, আলি মাস্টার সহ ৫ জনের নিকট থেকে ডিড নিয়ে ভোগ দখলে থাকা অবস্থায় আমার ঘেরটি তোবারক হোসেন ভুট্টোর লোকজন দখল করে রেখেছে। এ নিয়ে আমি থানায় একটি অভিযোগও করেছি। তোবারক হোসেন জানান, অনুপ কুমার থানায় যে অভিযোগ করেছেন সেখানে সে মালিকানা জমির ডিড মূলে ঘের মালিকের দাবী করেছেন। যা আদৌ সঠিক নয়। 

এ ব্যাপারে ওসি আমিনুল ইসলাম বিপ্লব জানান, বর্তমানে আমি নির্বাচনী কাজে বাইরে রয়েছি। তবে শুনেছি ঘের সংক্রান্ত বিষয়ে থানায় একটি অভিযোগ হয়েছে। আমি থানায় ফিরে উভয়পক্ষের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দেখে এ ব্যাপারে ব্যবস্থা গ্রহণ করব।