Opu Hasnat

আজ ২৬ মে শনিবার ২০১৮,

কালকিনিতে জামাইয়ের মারধরে শ্বাশুরীর মৃত্যু, গ্রেফতার ১ মাদারীপুর

কালকিনিতে জামাইয়ের মারধরে শ্বাশুরীর মৃত্যু, গ্রেফতার ১

মেয়ে নির্যাতনের ঘটনা বাঁধা দেয়ায় মাদারীপুরের কালকিনিতে মেয়ে জামাইয়ের বেদম মারধরে শেফালী বেগম (৪০)  নামের এক আহত শ্বাশুরী চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। এ ঘটনায় আজ সোমবার সকালে ১ জনকে গ্রেফতার করেছেন থানা পুলিশ। রোববার রাত ৮টার দিকে বরিশাল সেবাচিম হাসপাতালে তিনি মারা যান বলে নিহতের পরিবার জানান। এ বিষয় থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

পুলিশ ও নিহতের পরিবার সুত্রে জানাগেছে, উপজেলার নবগ্রাম এলাকার উত্তর খিলগ্রামের ওপেন বাড়ৈর মেয়ে মমতা বেগমের সাথে পশ্চিম শশীকর গ্রামের সূর্য রায়ের ছেলে রবিন বাড়ৈর প্রায় ১৪ বছর আগে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই স্বামী রবিন বাড়ৈ যৌতুকের দাবীতে বিভিন্ন সময় মমতা বেগমকে শারীরিকভাবে নির্যাতন চালিয়ে আসছে। গত শুক্রবার নির্যাতিতা গৃহবধুর মা ফেলালী বেগমের সামনে বসে তার মেয়ে মমতাকে পূনরায় শারীরিক নির্যাতন করে জামাই রবিন বাড়ৈ। এ নির্যাতনের ঘটনা বাঁধা দিলে এতে ক্ষিপ্ত হয়ে শ্বাশুরী শেফালী বেগমকে বেদম মারধর করেন জামাই রবিন বাড়ৈ। এতে করে শেফালী বেগম গুরুতর আহত হয়। পরে তাকে বরিশাল সেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করলে সেখানে তার চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় ডাসার থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন নিহতের পরিবার। আজ সোমবার ডাসার থানা পুলিশ যৌতুকলোভী রবিনের বোনজামাই উজ্জল সংকরকে আটক করেন। তবে ঘটনার পর থেকেই রবিন বাড়ৈ পলাতক রয়েছেন।
নিহতের মেয়ে মমতা বেগম বলেন, আমি আমার মায়ের হত্যাকারীর বিচার চাই।

এ ব্যাপারে ডাসার থানার ওসি মোঃ এমদাদুল হক বলেন, মেয়ে জামাইয়ের মারধরের কারনে শ্বাশুরী শেফালী বেগমের মৃত্যু হয়েছে। থানায় হত্যা মামলা হয়েছে। এ ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেপ্তারের জোর প্রচেষ্টা চলছে।