Opu Hasnat

আজ ১৬ আগস্ট বৃহস্পতিবার ২০১৮,

ভোটাররা যোগ্য প্রার্থী দেখে ভোট দিতে চান

জমে উঠেছে হাজি শরিয়তুল্লাহ বাজার ব্যবস্থাপনা কমিটির নির্বাচন ফরিদপুর

জমে উঠেছে হাজি শরিয়তুল্লাহ বাজার ব্যবস্থাপনা কমিটির নির্বাচন

উৎসব মুখুর পরিবেশের মধ্যে দিয়ে ফরিদপুরের ব্যস্ততম বানিজ্যিক কেন্দ্র হাজি শরিয়তুল্লাহ বাজার ব্যবস্থাপনা কমিটির নির্বাচন জেেম উঠেছে। সকাল থেকে গভীর রাত অবধি প্রার্থীরা তাদের প্রচার প্রচারনা চালাচ্ছেন। এরই মধ্যে বিনা প্রতিদ্বন্ধীতায় সভাপতি পদে হাবিবুর রহমান পিকু নির্বাচিত হয়েছেন। বাকি ২০টি পদের জন্য ৪৮জন প্রার্থী তাদের প্রচার চালাচ্ছেন নির্বাচিত হওয়ার জন্য। তবে নির্বাচনে যোগ্য, সৎ ও ব্যাবসায়িক বান্ধব প্রার্থীকে বিজয়ী করার কথা বলছেন এবারের বাজারের ভোটাররা। 

বাজরের ভোটার হোটেল ব্যবসায়ী মোঃ শাহজাহান মোল্লা বলেন, এবারের নির্বাচনে আমরা যোগ্য, সৎ ও ব্যাবসায়িক বান্ধব প্রার্থীকে ভোট দেব। কারন এতোবড় একটি বাজারের দায়িত্বভার অযোগ্য প্রার্থীর হাতে তুলে দেয়া আমাদের সঠিক কাজ হবেনা। 

মাছ বিক্রেতা মাসুদ বলেন, ফরিদপুর জেলার সবচেয়ে বড় বাজার হলো হাজি শরিয়তুল্লাহ বাজার। এ বাজরের নির্বাচনে আমি চাই একটি সুষ্ঠ সুন্দর নির্বাচন হইক। তিনি বলেন নির্বাচনে এবার যারা বিজয়ী হবেন তাদের কাছে দাবি থাকবে আমাদের বাজারের পরিস্কার পরিছন্নতা বজায় রাখা যেন হয়। 

হলদার এসোসিয়শনের সভাপতি জগদিশ সরকার বলেন, জনগনের ভোটের মাধ্যমে যেন প্রার্থী নির্বাচন করা হয়। আমরা এবার এই বাজারে একটি সুষ্ঠ সুন্দর নির্বাচনের প্রত্যাশা করি। 

সাধারন সম্পাদক প্রার্থী নুরুল ইসলাম বলেন, হাজি শরিয়তুল্লাহ বাজারটি হলো একটি নিত্য প্রয়োজনীয় বাজার। এই বাজারে তারাই ভোটার হয়েছেন যারা নিত্য প্রয়োজনীয় এই বাজারের ব্যবসার সাথে জরিত। এই জন্য আমি একজন প্রার্থী হিসেবে বলবো ভোটাররা দেখে শুনে বুঝে ভোট দেবেন যোগ্য প্রার্থী দেখে এই প্রত্যাশা আমার।  

এরই মাঝে বিনা প্রতিদ্ধন্ধীতায় নির্বাচিত হয়েছেন সভাপতি হাবিবুর রহমান পিকু তিনি বলেন, আমি চাই একটি সুষ্ঠ সুন্দর নির্বাচন হইক। ভোটাররা যাতে উৎসব মুখুর পরিবেশে তাদের ভোট দিতে পারে। আর এই প্রত্যাশা ভোটারদের সাথে আমারও। তিনি বলেন বাজারের নির্বাচনে প্রকৃত যারা ব্যবসায়ী তারা আসবে ভোটের মাধ্যমে এই প্রত্যাশা করি এই বাজারের একজন ব্যবসায়ী হিসেবে। এছাড়া সন্ত্রাস দূর্নীতি মুক্ত একটি কমিটি হইক এটা আমার মনের চাওয়া পাওয়া।

উল্লেখ্য, হাজি শরিয়তুল্লাহ বাজারের এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৪ঠা মে যাতে ১১৭২ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।