Opu Hasnat

আজ ১৪ ডিসেম্বর শুক্রবার ২০১৮,

​ ৬ দফা দাবি আদায়ের লক্ষ্যে

লোহাগড়ায় মুক্তিযোদ্ধাদের মানববন্ধন, বিক্ষোভ মিছিল ও স্মারকলিপি প্রদান মুক্তিবার্তানড়াইল

লোহাগড়ায় মুক্তিযোদ্ধাদের মানববন্ধন, বিক্ষোভ মিছিল ও স্মারকলিপি প্রদান

কোটা সংস্কারের নামে হত্যার গুজব ছড়িয়ে উস্কানি দিয়ে দেশে অরাজকতা, নাশকতা নৈরাজ্য ও সন্ত্রাস সৃষ্টিকারীদের চিহ্নিত করে তাদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। জামাত-শিবির, যুদ্ধাপরাধী ও স্বাধীনতা বিরোধী ব্যক্তি ও তাদের দলের সন্তানদের সরকারি চাকুরীতে নিয়োগ দেয়া বন্ধ করতে হবে। জামাত-শিবির ও স্বাধীনতা বিরোধী যারা সরকারি চাকুরীতে বহাল থেকে দেশের উন্নয়ন ব্যহত করছে এবং মুক্তিযুদ্ধ ও সরকার বিরোধী নানা চক্রান্তে লিপ্ত রয়েছে তাদের চিহ্নিত করে চাকুরী থেকে বরখাস্ত করতে হবে। যুদ্ধাপরাধীদের সকল স্থাবর অস্থাবর সম্পত্তি সরকারের অনুকুলে বাজেয়াপ্ত করতে হবে। ২০১৩, ২০১৪ ও ২০১৫ সালে যারা পুড়িয়ে, পিটিয়ে ও কুপিয়ে শ্রমিক কর্মচারী পেশাজীবী মুক্তিযোদ্ধা, পুলিশ, বিজিবি, ছাত্র, যুবক, শিশু, নারীসহ অসংখ্য মানুষ হত্যা করেছে এবং আগুন সন্ত্রাস সৃষ্টি করে বেসরকারী ও রাষ্ট্রীয় সম্পদ ধ্বংস করেছে স্পেশাল ট্রাইবুনাল গঠন করে তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মান ক্ষুন্নকারি এবং মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে কটাক্ষকারীদের বিরুদ্ধে পাশ্চাত্যের ‘হলোকাষ্ট বা জেনোসাইড ডিনায়েল ল’ এর আদলে আইন প্রনয়ন করে বিচারের ব্যবস্থা করতে হবে। 

বুধবার (১৮ এপ্রিল) সকালে স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধাগণ উক্ত ৬ দফা দাবিগুলি আদায়ের লক্ষে নড়াইলের লোহাগড়া মু্িক্তযোদ্ধা কমপ্লেক্সের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন শেষে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। মিছিলটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন শেষে উপজেলা পরিষদে গিয়ে শেষ হয়। পরে তাঁরা ৬ দফা দাবি বাস্তবায়নের জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নড়াইল জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি প্রেরণ করেন।  

এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার ফকির মফিজুল হক, ডেপুটি কমান্ডার মোঃ আব্দুল হামিদ, মুক্তিযোদ্ধা কাজী সানোয়ারসহ শতাধিক মুক্তিযোদ্ধা।

এই বিভাগের অন্যান্য খবর