Opu Hasnat

আজ ১৬ অক্টোবর মঙ্গলবার ২০১৮,

বসবাসের উপযুক্ত পরিবেশ সৃষ্টি করে রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানো হবে চট্টগ্রাম

বসবাসের উপযুক্ত পরিবেশ সৃষ্টি করে রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠানো হবে

চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নান বলেছেন, অমানবিক নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে যেসব রোহিঙ্গা মিয়ানমার থেকে পালিয়ে এসে কক্সবাজার, টেকনাফ, উখিয়া ও  বান্দরবানসহ বিভিন্নস্থানে  পালিয়ে এসেছে তাদেরকে সরকারের উদ্যোগে অস্থায়ীভাবে বসবাসের সুযোগ দেয়া হয়েছে। সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন সংস্থা ও প্রতিষ্ঠানের সৌজন্যে তাদের খাবার, স্যানিটেশন ব্যবস্থা, পানীয় জল ও চিকিৎসাসহ যাবতীয় সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করা হয়েছে। বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে তাদের নিবন্ধন কার্যক্রমও অব্যাহত রয়েছে। পাহাড়ি এলাকা ও পাহাড়ের পাদদেশে যেসব রোহিঙ্গা অবস্থান করছে তারা যাতে পাহাড়ধসসহ কোন ধরনের ঝুঁকির মধ্যে না থাকে সে ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। তাদেরকে এখানে চিরস্থায়ী করে রাখা যাবে না। মিয়ানমারের যেসব এলাকা থেকে রোহিঙ্গারা এদেশে পালিয়ে এসেছে সেখানে শান্তিপূর্ণভাবে বসবাসের উপযুক্ত পরিবেশ সৃষ্টি করে তাদের ফেরত পাঠানোর ব্যবস্থা করা হবে। 

রোববার বিকেল ৪টায় বিভাগীয় কমিশনার অফিসের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত বাংলাদেশে অবৈধভাবে অনুপ্রবেশকারী মিয়ানমারের রোহিঙ্গা নাগরিকদের চিহ্নিতকরণ সংক্রান্ত বিভাগীয় কমিটির সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত রোহিঙ্গা চিহ্নিতকরণ সংক্রান্ত বিভাগীয় কমিটির সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. ইকবাল বাহার বিপিএম,পিপিএম. পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি ড. এস এম মনির উজ- জামান বিপিএম, পিপিএম, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) শংকর রঞ্জন সাহা, অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (উন্নয়ন) মো. নুরুল আলম নিজামী, বিভাগীয় পরিচালক (স্থানীয় সরকার) দীপক চক্রবর্তী, কক্সবাজারের রামুর পিএসসি’র সেক্টর কমান্ডার কর্নেল আব্দুল খালেক, চট্টগ্রাম সিজি বেইস’র অধিনায়ক কমান্ডার এসএম মঈনু উদ্দিন, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ ইলিয়াস হোসেন, বান্দরবান জেলা প্রশাসক মো. আসলাম হোসেন, বিএন’র লেঃ কমান্ডার রায়হান, আনসার ভিডিপি’র রেঞ্জ কমান্ডার নির্মলেন্দু বিশ্বাস, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো. জহির উদ্দিন দেওয়ান, চট্টগ্রাম অঞ্চলের বন সংরক্ষক ড. মো. জগলুল হোসেন, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর পার্বত্য চট্টগ্রামের তত্ত্বাবধায়ক ফিরোজ আলম চৌধুরী, কোস্ট গার্ড পূর্ব জোনের জোনাল কমান্ডার ক্যাপ্টেন শহিদুল ইসলাম প্রমুখ।

এদিকে, বর্ষাকালে সম্ভাব্য ঘূর্ণিঝড়, ঢল, ও পাহাড় ধ্বস হতে বাস্তুচ্যূত মায়ানমার নাগরিকদের রক্ষায় প্রস্তুতি গ্রহণ সংক্রান্ত বিষয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সচিব মো. নজিবুর রহমান গতকাল রোববার বিকেল সাড়ে ৪টায় চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার অফিসের সাথে ভিডিও কনফারেন্স করেন। এ সময় ঘূর্ণিঝড় ও পাহাড় ধ্বসসহ বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সচিবের সাথে ভিডিও কনফারেন্সে কথা বলেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নান।