Opu Hasnat

আজ ১৮ আগস্ট শনিবার ২০১৮,

সুন্দরগঞ্জ ও নাসিরনগর আসনের উপনির্বাচন গাইবান্ধাব্রাহ্মনবাড়িয়া

সুন্দরগঞ্জ ও নাসিরনগর আসনের উপনির্বাচন

গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ (নাসিরনগর) আসনের উপনির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ। আজ মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে, বিকেল ৪টায় ভোট গ্রহন শেষ হয়।

নির্বাচনী এলাকায় ভোটগ্রহণের দিন সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।

নির্বাচনী এলাকার প্রতিটি সাধারণ ভোটকেন্দ্রে ৮ জন পুলিশসহ ২২ জন এবং গুরুত্বপূর্ণ ভোটকেন্দ্রে ১০ জন পুলিশসহ ২৪ জন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।

গাইবান্ধা
উপনির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন- আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী আফরুজা বারী (নৌকা), জাতীয় পার্টি (জাপা) সমর্থিত প্রার্থী ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারী (লাঙ্গল), ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) জিয়া জামান খান (আম) ও গণফ্রন্টের শরিফুল ইসলাম (মাছ)।

নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার জি এম সাহাতাব উদ্দিন বলেন, নির্বাচনকে ঘিরে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রায় ৪ হাজার কর্মকর্তা ও সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। যেকোন সমস্যা মোকাবিলায় সবখানে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সজাগ রয়েছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া
নির্বাচনে তিনজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা হলেন- আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ফরহাদ হোসেন, জাতীয় পার্টির (জাপা) রেজওয়ান আহমেদ ও ইসলামী ঐক্যজোটের প্রার্থী আশরাফুল হক।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ৩১ ডিসেম্বর সরকারদলীয় সংসদ সদস্য ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মনজুরুল ইসলাম লিটন দুর্বৃত্তের গুলিতে নিহত হলে গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনটি শূন্য হয়। পরে ২০১৭ সালের ২২ মার্চ উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে জয়লাভ করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা আহমেদ। তিনিও সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয়ে এক মাস ঢাকায় চিকিৎসাধীন থাকার পর গত বছরের ১৯ ডিসেম্বর মারা যান। ফলে আসনটি আবারও শূন্য হয়।

অন্যদিকে গত বছরের ১৬ ডিসেম্বর ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ (নাসিরনগর) আসনের সংসদ সদস্য ছায়েদুল হক মারা যান। তার মৃত্যুতে আসনটি শূন্য হয়ে যাওয়ায় উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। এ আসনে মোট ভোটার সংখ্যা ২ লাখ ১৪ হাজার নয়জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার এক লাখ ১০ হাজার ৪১০ জন ও নারী ভোটার এক লাখ ৩৫ হাজার ৯৯ জন।