Opu Hasnat

আজ ১৯ জুন মঙ্গলবার ২০১৮,

মোরেলগঞ্জে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কলাগাছের তৈরী শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলী বাগেরহাট

মোরেলগঞ্জে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কলাগাছের তৈরী শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলী

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জের প্রায় শতভাগ  শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কলাগাছ, কাঠ, আর বাঁশ দিয়ে নির্মিত শহীদ মিনারে ভাষা শহীদের স্মরনে পুর্ষ্পাঘ্য অর্পণ করে শ্রদ্ধাঞ্জলী জানিয়েছে। হাতে গোনা কয়েক কলেজ ও মাধ্যমিক পর্যায়ের বিদ্যালয়ে শহীদ মিনার রয়েছে। মোরেলগঞ্জ পৌর সদরের ৯৮ বছরের ঐতিহ্যবাহী এসিলাহা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় ও সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে আজও গড়ে উঠেনি শহীদ মিনার।
  
মোরেলগঞ্জ পৌর সদর সহ  উপজেলার ১৬ ইউনিয়নে রয়েছে ১৪ টি কলেজ, নিম্নমাধ্যমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয় ৬৫ টি, দাখিল ও সিনিয়র পর্যায়ের মাদ্রাসা ৬৪ টি এবং সরকারি প্রাথমকি বিদ্যালয়ের সংখ্যা রয়েছে ৩০৮টি। সব মিলিয়ে মোরেলগঞ্জে সাড়ে ৪ শতাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানে প্রতিবছর কলাগাছ, বাঁশ কিংবা কাঠের তৈরী শহীদ মিনার তৈরী করে পুষ্পার্ঘ অর্পণের মধ্যে দিয়ে দিবসটি পালন করে। মোরেলগঞ্জ সদরের এসএম কলেজ, রওশন আরা ডিগ্রী কলেজ, দৈবজ্ঞহাটী সেলিমাবাদ কলেজ সহ হাতে গোনা কিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শহীদ মিনার রয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানে নিজস্ব অর্থায়নে শহীদ নির্মান করা হয়েছে। কয়েকটি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও মাদ্রাসার প্রধানরা জানান, প্রতিবছরের ন্যায়  এবছর তার কলাগাছ ও কাঠ দিয়ে শহীদ মিনার তৈরী করে দিবসটি পালন করেছে। বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষকরা জানান, সরকারিভাবে বিষয়টি বাধ্যতামূলক  এবং শহীদ মিনার নির্মানে সরকারিভাবে অর্থ বরাদ্ধ করা হোক।  
    
চলতি বছরে অধিকাংশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিজস্ব শহীদ মিনারে পুষ্পার্ঘ অর্পণের মধ্যে দিয়ে দিবটি পালন করতে পারবে এমন আশ্বাস দিয়েছিলেন গতবছরের উপজেলা পর্যায়ের প্রশাসনিক ব্যক্তিরা । কিন্তুু এমন আশ্বাস যে তিমিরেই সে তিমিরেই রয়ে গেছে। 

মোরেলগঞ্জ এসিলাহা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুল মালেক জানান, তাদের শহীদ মিনার নির্মানের জন্য বাগেরহাট-৪ আসনের সংসদ সদস্য ডাঃ মোজ্জাম্মেল হোসেন গতবছরে বরাদ্ধকৃত ১ লক্ষ ২৫ হাজার টাকায় শহীদ মিনার নির্মানের কাজ চলছে। চলতি বছরে বাকী কাজ সমাপ্তের জন্য আরো ২ লক্ষ টাকা বরাদ্ধ হয়েছে। মোরেলগঞ্জ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোহাম্মদ ফারুকুল ইসলাম জানান, তার বিদ্যালয়ে স্থান সংকুলান না হওয়ায় উদ্দ্যোগ থাকা সত্তেও শহীদ নির্মান সম্ভবপর হচ্ছেনা। 

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ আব্দুল হান্নান জানান, উপজেলা ২৭ টি স্কুল, ৩টি কলেজ ও ২ টি মাদ্রাসায় নিজস্ব শহীদ মিনার রয়েছে।