Opu Hasnat

আজ ১৯ আগস্ট রবিবার ২০১৮,

চট্টগ্রামে ১৬ শিক্ষার্থী আটক : বহিষ্কার ২৭ চট্টগ্রাম

চট্টগ্রামে ১৬ শিক্ষার্থী আটক : বহিষ্কার ২৭

চট্টগ্রামে পরীক্ষার আগে কেন্দ্রের বাইরে মোবাইলে প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনায় ১৬ শিক্ষার্থীকে আটক এবং ২৭ শিক্ষার্থীকে বহিষ্কার করা হয়েছে। এর মধ্যে মহানগরীর বাওয়া স্কুল কেন্দ্রে আটক ৯ এবং বহিষ্কার ২৪। নগরীর বাইরে জেলার ফটিকছড়ির হেয়াকোঁ বনানী স্কুল কেন্দ্রে গ্রেফতার ৭ এবং বহিস্কার করা হয়েছে ৩ শিক্ষার্থীকে। আটককৃত শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

চট্টগ্রামের জেলা প্রশাসক মো. জিল্লুর রহমান খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। এদিকে, মঙ্গলবার  বিকেলে নগরীর বাংলাদেশ মহিলা সমিতি (বাওয়া) স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্র থেকে  এসএসসির পদার্থবিজ্ঞানের প্রশ্ন ফাঁসের দায়ে নয়জন পরীক্ষার্থীকে আটক করেছে পুলিশ। আটক সবাই পটিয়া আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছিল।

অপরদিকে ফটিকছড়ির হেয়াকোঁ বনানী স্কুল কেন্দ্র থেকে একই ঘটনায় গ্রেফতার হওয়া সাতজন শিক্ষার্থীও মধ্যে ৩ জন বাগান বাজার স্কুলের, ৩ জন গজারিয়া জেবুন্নেছা স্কুলের এবং বাকি ১ জন চিকন ছড়া স্কুলের। গ্রেফতারকৃতরা হলেন ওসমান গনি, এবায়েদ উল্লাহ, রনজিত পাল, নিলয় চন্দ্র দে, শরীফুল ইসলামমেজবা উদ্দিন ও শহিদুল ইসলাম সাগর।

এর আগে চট্টগ্রামের মহিলা সমিতি স্কুল অ্যান্ড কলেজ (বাওয়া স্কুল) কেন্দ্রের বাইরে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের মোবাইলে পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের প্রশ্নপত্র পেয়েছে প্রশাসন। একই ঘটনা ঘটেছে জেলার ফটিকছড়ির হেয়াকোঁ বনানী স্কুল কেন্দ্রে।

মঙ্গলবার সকালে পরীক্ষা শুরু একটু আগে কেন্দ্রের বাহিরে তল্লাশি চালিয়ে মোবাইল ফোনে আজকের পরীক্ষার প্রশ্ন পায় জেলা প্রশাসন। পাওয়া প্রশ্নপত্রের সঙ্গে মিলে যায় মূল প্রশ্ন। এসময় শিক্ষার্থীদের কয়েকটি মোবাইল ফোন জব্দ করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. হাবিবুর রহমান বলেন, পটিয়া আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থীরা বাওয়া স্কুল কেন্দ্রে পরীক্ষা দিতে আসে। কেন্দ্রের বাইরে কিছু শিক্ষার্থীর মোবাইলে প্রশ্নপত্র পাওয়া যায়। তাদের প্রহরায় পরীক্ষা নেওয়া হচ্ছে।

এদিকে একই ঘটনা ঘটেছে জেলার ফটিকছড়ির হেয়াকোঁ বনানী স্কুল কেন্দ্রে। সেখানেও পুলিশ কেন্দ্রের বাইরে ৯ শিক্ষার্থীর নিকট মোবাইলে প্রশ্নপত্র পায়। পুলিশ প্রহরায় তারা পরীক্ষা দিচ্ছে।

দাঁতমারা তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এস আই মিয়া আবুল কালাম আজাদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন এ ঘটনার সাথে জড়িত বাগান বাজার স্কুলের ৫, চিকন ছড়া স্কুলের ৩ এবং গজারিয়া জেবুন্নেছা স্কুলের ১ শিক্ষার্থীসহ মোট ৯ জনকে গ্রেফতারের প্রক্রিয়া চলছে। ঘটনাস্থলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) আবু হাসনাত মো. শহীদুল হক ঘটনাস্থলে রয়েছেন।