Opu Hasnat

আজ ১৫ আগস্ট বুধবার ২০১৮,

দেশের অতন্দ্রপ্রহরী বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ঐক্য চাই : মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী চট্টগ্রামমুক্তিবার্তা

দেশের অতন্দ্রপ্রহরী বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ঐক্য চাই : মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী বলেছেন, বীর মুক্তিযোদ্ধারা এদেশের শ্রেষ্ঠ সন্তান। জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে তাঁরা মহান মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে না পড়লে আমরা আজ ‘বাংলাদেশ’ নামক একটি স্বাধীন রাষ্ট্র পেতাম না। তাঁদেরকে অবহেলা করলে চলবে না, যথাযথ সম্মান দিতে হবে।  জাতির জনকের কন্যা জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আসার পর মুক্তিযোদ্ধাদের কল্যাণে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। স্বাধীনতা সংগ্রামে অংশগ্রহণকারী কোন প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা যাতে মূল তালিকা থেকে বাদ না পড়ে সেদিকে সকলকে সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে। যারা স্বাধীনতা ও দেশ বিরোধী তাদের নাম মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকায় রাখা যাবে না।  পাশাপাশি আগামীতে অনুষ্ঠিতব্য বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ চট্টগ্রাম মহানগর ইউনিট কমান্ডের সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনে বর্তমান ইউনিট কমান্ডার মোজাফফর আহমদের নেতৃত্বে সকলের ঐক্যবদ্ধ প্রয়াস জরুরি। প্রধানমন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালি ও দেশের উন্নয়নের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে দেশের অতন্দ্রপ্রহরী বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। 

শনিবার সকাল ১১টায় নগরীর দারুল ফজল মার্কেটস্থ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ চট্টগ্রাম মহানগর ইউনিট কমান্ড কার্যালয়ের অনুষ্ঠিত মহানগরী থেকে অনলাইনে আবেদনকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের যাচাই-বাচাই কার্যক্রম নিরসন বিষয়ক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ চট্টগ্রাম মহানগর ইউনিট কমান্ডার মো. মোজাফফর আহমদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় অতিথি হিসেবে বক্তব্য রখেন যুদ্ধকালীন কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. মাহফুজুর রহমান, মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা নাঈম উদ্দিন চৌধুরী, যুদ্ধকালীন সি.এন.সি স্পেশাল শওকত হাফিজ খান রুমু, যুদ্ধকালীন বেইজ কমান্ডার আবু সাঈদ সর্দার, যুদ্ধকালীন কমান্ডার মো. ইলিয়াছ, যুদ্ধকালীন কমান্ডার মো. হোসেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা বদিউল আলম, জাতীয় শ্রমিক লীগের যুগ্ম সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা সফর আলী। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মুক্তিযোদ্ধা সংষদ মহানগর ইউনিটের ডেপুটি কমান্ডার শহীদুল হক চৌধুরী ছৈয়দ, সহকারী কমান্ডার সাধন চন্দ্র বিশ্বাস, সহকারী কমান্ডার এফ.এফ আকবর খান (যুদ্ধাহত), সহকারী কমান্ডার খোরশেদ আলম (যুদ্ধাহত), সহকারী কমান্ডার রফিকুল ইসলাম। কোতোয়ালী থানা কমান্ডার সৌরিন্দ্র নাথ সেন, চান্দগাঁও থানা কমান্ডার মো. কুতুব উদ্দিন চৌধুরী, পাঁচলাইশ থানা কমান্ডার আহমদ মিয়া, পাহাড়তলী থানা কমান্ডার হাজী জাফর আহমদ, ডবলমুরিং থানা কমান্ডার দোস্ত মোহাম্মদ, বন্দর থানা কমান্ডার কামরুল আলম জতু, পতেঙ্গা থানা কমান্ডার মো. এমরান গাজী, খুলশী থানা কমান্ডার মো. ইউছুফ, আকবর শাহ থানা কমান্ডার সেলিম উল্লাহ, বায়েজিদ থানা কমান্ডার ক্যাপ্টেন (অব.) ছাবের আহমদ, বাকলিয়া থানা কমান্ডার আলী হোসেন, সদরঘাট থানার ডেপুটি কমান্ডার অঞ্জন সেন, আকবর শাহ থানার ডেপুটি কমান্ডার মো. নূর উদ্দিন, পতেঙ্গা থানার ডেপুটি কমান্ডার জাগির হোসেন, হালিশহর থানার ডেপুটি কমান্ডার আলহাজ মো. আবুল কাসেম, বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. ইয়াকুব, বীর মুক্তিযোদ্ধা ছৈয়দ আহমদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হাফেজ, বীর মুক্তিযোদ্ধা নূর আহমেদ প্রমুখ।