Opu Hasnat

আজ ১৭ নভেম্বর রবিবার ২০১৯,

প্রতিদিন টিকটিকির স্যুপ খান যিনি অন্যান্য

প্রতিদিন টিকটিকির স্যুপ খান যিনি

চিকেন সুপ তার তেমন ভালো লাগে না৷ খাসির সুপেও মন ভরে না৷ তবে টিকটিকি পেলে আর কিছুই চান না তিনি৷ মনের আনন্দে টিকটিকির স্যুপ খেয়ে নেন৷ এমনই তার খাদ্য রুচি!

কেউ কেউ বলবেন কুরুচি৷ কিন্তু ভারতের মধ্যপ্রদেশের মেতা গ্রামের বাসিন্দা কৈলাসের কাছে টিকটিকি স্যুপ বা টিকটিকি কথা শুনলে জিভে পানি আনা খাবার! খুব সুন্দরভাবে কচকচিয়ে চিবিয়ে চিবিয়ে জ্যান্ত টিকিটিকি খেতে অভ্যস্থ৷ প্রতিদিন রাতের খাবারে তার অন্তত তিনটি টিকটিকি বরাদ্দ থাকে৷ 

গত ২০ বছর ধরে নিয়মিত টিকটিকি খাচ্ছেন কৈলাস৷ অসুস্থ হননি৷ এলাকাবাসী জানিয়েছেন, ও একটা বিষ পুরুষ৷ না হলে জ্যান্ত টিকিটিকি চিবিয়ে খেয়ে কেউ বেঁচে থাকতে পারে না৷ কৈলাসের দেহের বিষ সবকিছু শুষে নেয়৷

কৈলাস জানিয়েছেন, প্রতিদিন অন্তত তিনটা টিকটিকির স্যুপ বা জুস না খেলে তাঁর ঠিকমতো ঘুম হয় না৷ অন্তত ৬০ রকমের কীটপতঙ্গ খেয়েছেন তিনি৷ কিন্তু টিকিটিকির মতো কোনটাই নাকি খেতে ভালো নয়৷ দিনের পর দিন তার এই খাদ্যাভ্যাসের জেরে দেহে যে বিষ প্রতিরোধক ক্ষমতা তৈরি হয়েছে তার সুফল পেয়েছেন অনেকে৷ 

স্থানীয় কাউকে সাপে কামড়ালেই খোঁজ চলে কৈলাসের৷ দ্রুত ওই ব্যক্তিকে তার কাছে আনা হয়৷ বিষ পুরুষ কৈলাস সাপে কাটা রোগীর রক্ত ক্ষতস্থান থেকে মুখ দিয়ে বিষ রক্ত টেনে বের করে দেন৷ 

বেশি কিছু চান না কৈলাস৷ কিছু টিকিটিকি এনে দিলেই মন ভরে যায় তার৷ কৈলাস বলেন টিকিটিকি সেদ্ধর পানি খেয়ে রাতের ঘুমটা ভালোই হবে৷