Opu Hasnat

আজ ৩০ মে শনিবার ২০২০,

মোরেলগঞ্জে সেতারা আব্বাস টেকনিক্যাল এ্যান্ড বিএম কলেজে অধ্যক্ষ ও সভাপতিকে অব্যহতি বাগেরহাট

মোরেলগঞ্জে সেতারা আব্বাস টেকনিক্যাল এ্যান্ড বিএম কলেজে অধ্যক্ষ ও সভাপতিকে অব্যহতি

জাল জালিয়াতির মাধ্যমে সভাপতির পদ দখল, অবিবাহিত মহিলাকে অভিভাবক সদস্যা পদ প্রদান ও জুনিয়র শিক্ষকক ভরপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব প্রদান সহ নানা অভিযাগে বৃহস্পতিবার বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ সেতারা আব্বাস টেকনিক্যাল এ্যান্ড বিএম কলেজ জেলা পর্যায়ের তদন্ত হয়েছে। জেলা প্রশাসকের নির্দেশে জেলা শিক্ষা অফিসার সহ ৫ সদস্যের টিম সকালে এসব অনিয়মের বিষয়ে তদন্ত করেন। এ তদন্ত কার্যের পরপরই অবৈধভাবে সভাপতির পদ দখলকারী আব্দুল মান্নান শেখ ও তার আপন ভায়রা ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ এমএম শফিকুল ইসলাম তাদের স্ব-স্ব পদ থেকে লিখিতভাবে অব্যহতি নিয়েছেন। পাশাপাশি  সহযোগী অধ্যাপিকা জেসমিনকে  ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব প্রদান করা হয়। এ কলেজের প্রতিষ্ঠাতা সাবেক সংসদ সদস্য ড. মিয়া আব্বাস উদ্দিন একজন যুদ্ধাপরাধী মামলার আসামী। তিনি বর্তমানে স্ব পরিবারে কানাডায় অবস্থান করছেন। তিনি এ প্রতিষ্ঠান পারিবারিক প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ে তুলতে তার ভাগ্নি জামাত এমএম শফিকুল ইসলামকে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব দেয়া হয়।

এদিকে প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি বিদেশে থাকার সুযোগে জাল জালিয়াতির মাধ্যমে তার ভায়রা আব্দুল মান্নানকে সভাপতি দায়িত্ব দেয়া হয়। এছাড়াও তার স্ত্রী নাসরিন সুলতানাকে শিক্ষক প্রতিনিধি ও অবিবাহিতা সাবেক ইউপি সদস্যা জাহানারা আকতার খুকিকে অভিভাবক সদস্যা ও শিক্ষানুরাগী সদস্য হিসেবে তাদের পারিবারিক অপর এক প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক আব্দুল মালেকে সদস্য নিয়োগ দিয়ে ইচ্ছা মাফিক প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করছেন। ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ শফিকুল ইসলাম ৫ বছর যাবৎ এ পকেট কমিটির দিয়ে বিভিন্ন প্রকল্পের ও নিয়োগ বানিজ্য চালিয় আসছেন ।

এসব অভিযোগে জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার জাকিরুল হক, পরিদর্শক সুধাংশু কুমার, আল্লামা ফয়সাল, প্রদিপ কুমার বাহাদুর ও  গবেষনা কর্মকর্তা আলমগীর হোসেন  তদন্ত করেন। তদন্তের পরপরই অত্র কলেজের সভাপতি আব্দুল মান্নান শেখ ও ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ এমএম শফিকুল ইসলাম লিখিতভাবে তাদের পদ থেকে অব্যহতি নেয়। এসময় আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগ পৌর আহবায়ক তালুকদার মোঃ হাবিবুর রহমান জাকির যুদ্ধাপরাধী মামলার আসামী কলেজ প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি  ড. মিয়া আব্বাস উদ্দিন এর ছবি অফিস কক্ষ থেকে অপসারণ করেন।

 

এই বিভাগের অন্যান্য খবর