Opu Hasnat

আজ ৬ জুলাই সোমবার ২০২০,

ঝালকাঠি জেলা বিএনপির ইফতারিতে বিশৃঙ্খলা, নেতাকর্মীদের ক্ষোভ রাজনীতিঝালকাঠি

ঝালকাঠি জেলা বিএনপির ইফতারিতে বিশৃঙ্খলা, নেতাকর্মীদের ক্ষোভ

ঝালকাঠি জেলা বিএনপি আয়োজিত ইফতার ও দোয়া অনুষ্ঠানে বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হয়েছে। এতে অনেক তৃণমূল ত্যাগী নেতাকর্মীরা ইফতার বঞ্চিত হয়ে বিরূপ ও অশালীন মন্তব্য করে ফিরে গেছে। খবর পেয়ে ইফতারীর কিছুক্ষন পূর্বে জেলা বিএনপির সভাপতি ও বিএনপি চেয়ারপার্সন উপদেষ্টা ব্যরিস্টার শাহজাহান ওমর বীরউত্তম অনুষ্ঠান স্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেছে। শনিবার বিকেলে শহরের ফায়ারসার্ভিস মোড়স্থ জেলা বিএনপি কার্যালয়ে এঘটনা ঘটে। 

নেতাকর্মীরা জানায়, বিগত সরকার বিরোধী আন্দোলনে জেলায় ১৪ টি মামলা দায়ের হয়েছে। আন্দোলন কর্মসূচীতে অংশ না নিলেও কয়েকজন নেতাকেই প্রতিটি মামলায় আসামী করা হয়েছে। কিন্তু ইফতার অনুষ্ঠানে সুযোগবাদী নেতাদের ভীড়ে অনেক তৃণমূল পর্যায়ের ত্যাগী নেতাকর্মীরা ইফতার বঞ্চিত হয়ে ফেরত গেছে। একজনে ৪/৫টি প্যাকেট নিয়েছে আবার অনেকে ইফতারীই পায়নি। বৃহস্পতিবার সকাল ১১ টায় জেলা বিএনপির সভাপতি শাহজাহান ওমর এসে জনপ্রতি ৫০ টাকা করে বরাদ্দ দিয়ে ৫শ’ জনের ইফতারীর জন্য ২৫ হাজার টাকা জেলা বিএনপির সহসভাপতি মোস্তফা কামাল মন্টুর হাতে তুলে দেন। কিন্তু ইফতারীর প্যাকেটে পানি বিহীন জুস, পিয়াজু,  খেজুর, ছোলাবুট, বেগুনী ও জিলাপী দেয়া হয়। এতে সর্বমোট খরচ হয়েছে ৪০ টাকা। প্রতিটি প্যাকেট থেকেও ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে থাকা নেতারা ১০ টাকা করে কমিয়ে আত্মসাত করেছে বলে অভিযোগ করেন  নেতাকর্মীরা। তারা এ অব্যবস্থাপনার জন্য জেলা বিএনপির সহসভাপতি মোস্তফা কামাল মন্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসান বাপ্পী, যুববিষয়ক সম্পাদক রবিউল হোসেন তুহিন ও শহর সভাপতি অনাদী দাসকে দায়ী করেছেন। 

জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মনিরুল ইসলাম নুপুর বলেন, আমি না থাকায় ব্যবস্থাপনায় ত্রæটি হওয়াটাই স্বাভাবিক। তারপরেও ওমর ভাই এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেছে। 

এই বিভাগের অন্যান্য খবর